পদবঞ্চিতদের অবস্থান কর্মসূচিতে ঈদ সালামি ও পাঞ্জাবি পাঠালো ছাত্রলীগ

আমাদের নতুন সময় : 02/06/2019

সমীরণ রায় : ছাত্রলীগের পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে বিবাহিত, চারকরিজীবী, বয়স উত্তীর্ণ, চাঁদাবাজ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী, একাধিক মামলার আসামী রয়েছে বলে অভিযোগ তুলেছেন পদবঞ্চিতরা। তাদের দাবি বিতর্কিতদের বাদ দিয়ে যোগ্যদের স্থান করে দেওয়া। এই দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান নিয়েছেন তারা। এরই প্রেক্ষিতে পদবঞ্চিতরা যাতে মা-বাবার সঙ্গে ঈদ করতে পারেন তার জন্য ছাত্রলীগের সভাপতি রেজানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী তাদের ঈদ সালামী ও পাজামা পাঞ্জাবী পাঠিয়েছেন।

গত ১৩ মে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অনুমোদন সাপেক্ষে ছাত্রলীগের ৩০১ সদস্যের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করা হয়। এ থেকেই পূর্ণাঙ্গ কমিটিতে বিবাহিত, চারকরিজীবী, বয়স উত্তীর্ণ, চাঁদাবাজ, মুক্তিযুদ্ধের চেতনাবিরোধী, একাধিক মামলার আসামী রয়েছে দাবিতে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে ছাত্রলীগের পদবঞ্চিতরা। তাদের দাবি বিতর্কিতদের বাদ দিয়ে যোগ্যদের স্থান করে দেওয়ার। এরই পেক্ষিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনার পর সংগঠনের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক বিষয়টি দেখবেন বলে আশ্বাস দেন। এতে করে পদবঞ্চিতরা কর্মসূচি স্থগিত করে। তবে গত ২৭ মে ছাত্রলীগ বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানোর কর্মসূচি গ্রহণের পর পদবঞ্চিতরা ২৬ মে রাতেই রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান শুরু করে। এমনকি তারা ঘোষণা দেন, দাবি মেনে না নিলে রাজু ভাস্কর্যেই ঈদ করবেন। দাবিতে তারা অনড়।

এ সম্পর্কে ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী বলেন, ৪-৫ জন রাজু ভাস্কর্যে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে। আমরা ইতোমধ্যে বিবাহিত, চাকরিজীবী রয়েছেন, তাদের মধ্যে ১৯ জন চিহ্নিত করে শূণ্যপদ ঘোষণা করেছি। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে আসলেই শূণ্য স্থানগুলো পূরণ করবো। কিন্তু তারা কথা মানছে না। তাদের বার বার বলেছি, তোমরা মা-বাবার সঙ্গে গিয়ে ঈদ করতে বাড়ি যাও। শনিবার তাদের সঙ্গে ইফতার করে ঈদ সালামী ও পাজামা-পাঞ্জাবী দিয়েছি। গত ২৭ মে ধানম-ির ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেছি। আর প্রধানমন্ত্রী দেশে ফিরলেই আলাপ আলোচনা করে ১০ বা ১১ জুন টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সমাধিতে শ্রদ্ধা জানাতে যাবো।

পদবিঞ্চতদের অভিযোগ, তাদের খোঁজ খবর নিতে ছাত্রলীগের কোনো নেতা আসেননি। রোদ-বৃষ্টির মধ্যেও তারা কর্মসূচি চালিয়ে যাচ্ছেন। দাবি না মানলে রাজু ভাস্কর্যেই ঈদ করবেন তারা।

এ সম্পর্কে গোলাম রাব্বানী বলেন, তাদের সব সময়ই খোঁজ খবর নিচ্ছি। প্রতিনিয়ত যোগাযোগ রাখার চেষ্টা করছি। অবস্থান কর্মসূচিতে মূল ভূমিকা পালনকারীদের মধ্যে সাঈব বাবু, তিলোত্তমা সিকদার, লিপি, গোলাম মোস্তফা, আরাফতসহ সবার সঙ্গে কথা বলেছি। তাদের বলেছি, দাবি অনুযায়ী শূন্যপদগুলো পুরন করা হবে। তবে তারা বাড়ি না যায়, ঈদের দিন সেমাই, গুড়া দুধ, মিষ্টিসহ যা যা প্রয়োজন পাঠিয়ে দেবো।

অবস্থান কর্মসূচিতে থাকা ছাত্রলীগের গত কমিটির মুক্তিযুদ্ধ ও গবেষণা বিষয়ক উপ-সম্পাদক আল মামুন বলেন, আন্দোলনের মুখে ছাত্রলীগ সভাপতি এবং সাধারণ সম্পাদক ১৯টি পদ শূন্য ঘোষণা করেছেন। তার মানে আমারা সঠিক জায়গায় আছি। তাই ১৯টি শূন্য পদে নতুন নাম ঘোষণা না করে ৩০১ জনকে বিতর্কিত করছে। অন্যদিকে ৩০১ জনকেই বৈধতা দেওয়ার চেষ্টা করছে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]