• প্রচ্ছদ » আজকের পত্রিকা » ঈদযাত্রায় বৃষ্টির বাগড়া, বিমানের বেশ কয়েকটি অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট বাতিল, গাবতলীতেও প্রভাব, শিডিউল বিপর্যয় রোধে ব্যর্থ রেলওয়ে


ঈদযাত্রায় বৃষ্টির বাগড়া, বিমানের বেশ কয়েকটি অভ্যন্তরীণ ফ্লাইট বাতিল, গাবতলীতেও প্রভাব, শিডিউল বিপর্যয় রোধে ব্যর্থ রেলওয়ে

আমাদের নতুন সময় : 03/06/2019

তাপসী রাবেয়া : রোববার সকাল পেরোতেই আকাশ ছেয়েছে কালো মেঘে। এমন দিনে যারা ঈদযাত্রায় বেরিয়েছেন তারা পড়েছেন বেশ ঝামেলায়। বৃষ্টি মাথায় করে বাক্স পেটরা নিয়ে তাদের ছুটতে হচ্ছে বাস টার্মিনাল, ট্রেন স্টেশন, লঞ্চ টার্মিনাল কিংবা বিমানবন্দরের দিকে। অবশ্য ঈদযাত্রায় যে বৃষ্টি বাগড়া দিতে পারে সে আভাস বেশ আগেই দিয়ে রেখেছিল আবহাওয়া অধিদপ্তর।
রোববার দুপুর সদরঘাটে গিয়ে দেখা যায় হাজারো যাত্রী অপেক্ষায় আছেন। ছড়িয়ে ছিটিয়ে পড়ে আছে বেশ কয়েকটি জুতা, স্যান্ডেল। পরে আছে অনেকের হাতের রুমাল। সকাল থেকে লঞ্চ চলাচলে নিষেধাজ্ঞা থাকায় হুড়োহুড়িতে এই অবস্থা। অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোতে ১ নম্বর ও ২ নম্বর সতকর্তা জারি করার কারণে এই বিঘিœত হয় যাত্রা।
ভোলার যাত্রী জসিম মিয়া বলেন, আগেই লঞ্চের কেবিন বুক করে রেখেছি। লঞ্চ কর্তৃপক্ষ যাত্রী ভরে গেলেই লঞ্চ ছেড়ে দেয় তাই সকালে সদরঘাটে এসেছি। সঙ্গে থাকা ভেজা কাপড় দেখিয়ে বলেন, বাড়ি পৌঁছাতে পারলে এসব ভোগান্তি ভুলে যাবো।
দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে রোববার বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইনসের সিলেটগামী ও ফিরতি দুটি ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। এছাড়া বিমানের আরও তিনটি ফ্লাইটের সময় পুনঃনির্ধারণ করা হয়েছে। বিমানের মুখপাত্র শাকিল মেরাজ জানান, বৈরী আবহাওয়ার কারণে রোববার ভোররাত সাড়ে চারটার সিলেটগামী বিজি-৪০৫ ও বিজি-৪০৬ ফ্লাইট বাতিল করা হয়েছে। একই কারণে আরও তিনটি ফ্লাইটের সময় পুনঃনির্ধারণ করা হয়েছে। রেলওয়ে এবারো শিডিউল বির্পযয় রোধ করতে পারে নি। ধূমকেতু এক্সপ্রেস সকাল ছয়টায় রাজশাহীর উদ্দেশে কমলাপুর ছাড়ার কথা অথচ সেই ট্রেনটি সকাল ৯টার পরেও কমলাপুর স্টেশনের ২ নম্বর প্ল্যাটফর্মে দাঁড়ানো ছিলো। পরে প্রায় সাড়ে ৩ ঘণ্টা বিলম্বে সাড়ে ৯টার দিকে স্টেশন ছাড়ে ট্রেনটি। অন্যদিকে চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনটি সকাল ৮টায় কমলাপুর ছেড়ে যাওয়ার কথা থাকলেও বেলা ১১টা ৫০ মিনিটে ছাড়বে বলে জানানো হয়। এছাড়া খুলনাগামী সুন্দরবন এক্সপ্রেস সকাল ৬টা ২০ মিনিটে ছাড়ার কথা থাকলেও তা ছেড়েছে সকাল ৮টায়। ট্রেনের এই বিলম্বের কারণে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন যাত্রীরা। তবে এই কদিন বিলম্বে থাকা রংপুর এক্সপ্রেস ট্রেনটি যথা সময়েই স্টেশন ছেড়ে গেছে। চিলাহাটিগামী নীলসাগর এক্সপ্রেসের যাত্রী আনিকা খাতুন বর্ষা বলেন, সারা রাত লাইনে দাঁড়িয়ে টিকিট কেটেছি অথচ আজ যাত্রার দিনে ট্রেনটি ৪ ঘণ্টা বিলম্ব। এ বিষয়ে কমলাপুর স্টেশন ম্যানেজার আমিনুল হক বলেন, যে ট্রেনগুলো দেরিতে কমলাপুরে পৌঁছেছে, সেই গুলোই ছাড়তে কিছুটা বিলম্ব হয়েছে। এদিকে গাবতলী বাসস্ট্যান্ড, মহাখালী ও সায়েদাবাদ বাসস্ট্যান্ড ঘুরে দেখা গেছে বৃষ্টিতে যাত্রী কিছুটা কম। টাঙ্গাইল, মানিকগঞ্জ, গাজীপুরসহ ঢাকার আশপাশে চলাচল করে এমন বাসের যাত্রী কমেছে রোববার। কাউন্টারের কর্মীরা জানান বৃষ্টি আর ছুটির দিন হওয়ায় যাত্রী কম। তবে মূল ভিড় হবে আজ সোমবার। কর্মীরা বলেন, পাটুরিয়া দৌলতদিয়ায় ফেরি চলাচলে কিছুটা বিপত্তির কারণেও এদিকে যাত্রী কমেছে। সম্পাদনা : রেজাউল আহসান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]