অভিনব পদ্ধতিতে এটিএম বুথে জালিয়াতির অভিযোগে ইউক্রেনের ৬ নাগরিক রিমান্ডে

আমাদের নতুন সময় : 04/06/2019

মামুন আহম্মেদ খান : ডাচ বাংলা ব্যাংকের এটিএম বুথ থেকে কার্ড জালিয়াতি করে তিন লাখ টাকা উত্তোলনের অভিযোগে গ্রেফতার ছয় ইউক্রেনের নাগরিকের তিন দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। শুনানি শেষে গতকাল সোমবার ঢাকা মহানগর হাকিম ধীমান চন্দ্র মন্ডল রিমান্ডের আদেশ দেন। রিমান্ডে যাওয়া আসামিরা হলেন-দেনিস ভিতোমস্কি (২০), নাজারি ভজনোক (১৯), ভালেনতিন সোকোলোভস্কি (৩৭), সের্গেই উইক্রাইনেৎস (৩৩), আলেগ শেভচুক (৪৬) ও ভালোদিমির ত্রিশেনস্কি (৩৭)।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা খিলগাঁও জোনাল টিমের পুলিশ পরিদর্শক মো. আরিফুর রহমান ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে দায়ের করা মামলায় আসামিদের আদালতে হাজির করে ৮ দিনের রিমান্ড আবেদন করেন।

আবেদনে বলা হয়, আসামিরা একটি সংঘবদ্ধ আন্তর্জাতিক জালিয়াতি চক্রের সদস্য। তারা অভিনব পদ্ধতি ব্যবহার করে ডাচ বাংলা ব্যাংকের এটিএম বুথের সিস্টেম হ্যাক করে। আসামিদের জিজ্ঞাসাবাদে ঘটনার সাথে তাদের সম্পৃক্ত থাকার তথ্যাদি পাওয়া যাচ্ছে। ডিজিটাল জালিয়াতির মাধ্যমে বাংলাদেশের বিভিন্ন ব্যাংকের অর্থ উত্তোলনের জন্য বাংলাদেশে তারা এসেছে মর্মে প্রাথমিকভাবে প্রতীয়মান হয়।

মামলার মুল রহস্য উদঘাটন, জালিয়াতির মাধ্যমে হ্যাক হয়ে যাওয়া টাকা, জালিয়াতি পদ্ধতি ও ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা সম্পর্কে জানতে এবং পলাতক আসামিদের গ্রেফতার করার লক্ষ্যে আসামিদের রিমান্ড মঞ্জুরের প্রার্থণা করেন তদন্ত কর্মকর্তা।

দেনিস ভিতোমস্কি কে জনগণের সহায়তার ধরার সময় ও ভালেনতিন সোকোলোভস্কিকে পুলিশ কর্তৃক গ্রেফদার করার সময় ধস্তাধস্তিতে তারা সামান্য আহত হয়। তাদের আসামিকে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে বলে আবেদনে উল্লেখ করেন তদন্ত কর্মকর্তা। তবে আসামিদের পক্ষে কোন আইনজীবী ছিলেন না।

শনিবার রাতে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য তাদের মিন্টো রোডের গোয়েন্দা কার্যালয়ে নেওয়া হয়। এরপর তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়। ডাচ বাংলা ব্যাংক লি. এর হেড অব অল্টারনেট ডেলিভারি চ্যানেল (এডিসি) হেড অফিস এর মশিউর রহমান ২ জুন খিলগাঁও থানায় মামলাটি দায়ের করেন। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]