ঈদের দিন খালেদা জিয়ার সঙ্গে পরিবারের সাত সদস্যের সাক্ষাৎ

আমাদের নতুন সময় : 08/06/2019

শিমুল মাহমুদ : ঈদের দিন দুপুরে খালেদা জিয়ার সাথে সাক্ষাৎ করেন পরিবারের সাত সদস্য। অনুমতি পাননি দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। প্রতি বছরের মতো এবারের ঈদেও জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা জানিয়েছেন নেতাকর্মীরা। এদিকে বৃহস্পতিবার ভোরে বিএসএমএমইউ’র প্রশাসনিক ভবনের তৃতীয় তলায় রেজিস্ট্রারের কক্ষের সামনে থেকে বোমাসদৃশ বস্তু উদ্ধার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ। বুধবার বেলা একটার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাসপাতালে যান স্বজনরা। বেলা দেড়টার দিকে কেবিন ব্লকের ৬২১ নম্বর কক্ষে প্রবেশ করেন তারা। সেখানে প্রায় দেড় ঘণ্টা ছিলেন। বাসা থেকে রান্না করা পোলাও, মুরুগির রোস্ট, রেজালাসহ বিভিন্ন মাছ ভাজা, দুধ-সেমাই ও মিষ্টি নিয়ে যান তার পরিবারের সদস্য ও স্বজনেরা। এ সময় তাদের হাতে গোলাপের তোড়াও ছিলো।

বিএনপির চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শামসুদ্দীন দিদার বলেন, স্বজনদের মাধ্যমে বিএনপির চেয়ারপারসন দেশবাসীকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন।

পরিবারের সদস্যদের মধ্যে ছিলেন খালেদা জিয়ার বোন সেলিনা ইসলাম ও তার স্বামী রফিকুল ইসলাম, ভাই সাঈদ ইস্কান্দরের স্ত্রী, তারেক রহমানের স্ত্রী জোবাইদা রহমানের বড় বোন, খালেদা জিয়ার ছোট ছেলে আরাফাত রহমান কোকোর শাশুড়ি, ভাই শামীম ইস্কান্দরের ছেলে অভিক ইস্কান্দর।

বৃহস্পতিবার সংবাদ সম্মেলনে সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেন, বোমা উদ্ধারের ঘটনায় প্রমাণিত হলো, খালেদা জিয়ার নিরাপত্তার বিষয়ে সরকার উদাসীন অথবা অন্য কোনও ‘নীলনকশা’ অনুযায়ী কাজ হচ্ছে। আমরা খালেদা জিয়ার নিরাপত্তাব্যবস্থা জোরালো করাসহ তার সুচিকিৎসা নিশ্চিত করার দাবি জানাচ্ছি।

জিয়াউর রহমানের কবরে শ্রদ্ধা জানানো শেষে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, এ সরকারের সবচেয়ে বড় সমস্যা জনগণের সঙ্গে তাদের কোনও সম্পর্ক নেই। তাদের কোনও জবাবদিহি নেই। যদি দায়িত্বহীনতা থাকে, দায়িত্বশীলতা না থাকে, তাহলে এ ধরনের ঘটনা ঘটবেই। তাদের তো জনগণের কাছে জবাব দিতে হয় না। তারা একটি নির্বাচন করেছে, যেই নির্বাচনে জনগণের কোনও প্রয়োজন ছিল না। এরপর তারা দেশ চালাচ্ছেন অন্যায় ও বেআইনিভাবে।

তিনি বলেন, সুশাসন না থাকলে যা হয় তা-ই হয়েছে। তারা ৮টা-সাড়ে ৮টার মধ্যে বললেন চাঁদ দেখা যায়নি। ঈদের তারিখও বলে দিয়েছেন, বৃহস্পতিবার ঈদ হবে। এরপর ১১টার দিকে সিদ্ধান্ত সংশোধন করলেন। ধর্ম প্রতিমন্ত্রী নিজেই বললেন, কোথাও থেকে তারা খবর পেয়েছেন, ঈদ হবে। এতে সাধারণ মানুষের মধ্যে বিভ্রান্তি সৃষ্টি হয়, তারা ভোগান্তিতে পড়েন।

সম্পাদনা : বাশার নূরু




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]