বাজেটে ভ্যাট ব্যবস্থার পদ্ধতি সহজসহ ভ্যাট কর্মকর্তাদের স্বেচ্ছাক্ষমতা কমছে

আমাদের নতুন সময় : 10/06/2019

সোহেল রহমান : রাজস্ব আদায় বাড়াতে আগামী বাজেটে ‘মূল্য সংযোজন কর’ (ভ্যাট) ব্যবস্থার পদ্ধতি সহজ ও ভ্যাট কর্মকর্তাদের স্বেচ্ছাক্ষমতা কমিয়ে আনাসহ চারটি বিষয়ে বিশেষ গুরুত্ব দিচ্ছে ‘জাতীয় রাজস্ব বোর্ড’ (এনবিআর)। এছাড়া ‘ভ্যাট অন-লাইন প্রজেক্ট’ নামে একটি প্রকল্প গ্রহণ ও প্রকল্পের আওতায় অন-লাইনে ভ্যাট দাখিলপত্র প্রদান, ‘ভ্যাট অন-লাইন সার্ভিস সেন্টার’ স্থাপন, ই-লার্নিং ও ‘ভ্যাট হেল্প লাইন’ চালু করা হয়েছে। এখন থেকে ‘১৬৫৫৫’ নম্বরে ফোন দিলে ভ্যাট বিষয়ক যে কোনো তথ্য বা প্রশ্নের উত্তর জানা যাবে।
এনবিআর ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, নতুন মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন ২০১২’ যথাযথ বাস্তবায়নের লক্ষ্যে নতুন প্রজ্ঞাপন/আদেশ জারির পাশাপাশি প্রয়োজনীয় আইনি সংস্কারের কাজ ইতোমধ্যে শুরু করা হয়েছে। রাজস্ব বাজেট প্রণয়নে ভ্যাট অনুবিভাগ থেকে চারটি বিষয় বিবেচনায় নেয়া হয়েছে। এগুলো হচ্ছেÑ দেশের বৃহত্তর জনগোষ্ঠীর চাহিদা বিবেচনায় এবং বিনিয়োগ বান্ধব পরিবেশ সৃষ্টির লক্ষ্যে ‘মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন ২০১২’ ও সংশ্লিষ্ট বিধিমালা সংস্কারের মাধ্যমে ভ্যাট ব্যবস্থার পদ্ধতি সহজ করা; ভ্যাটের আওতা বাড়িয়ে রাজস্ব আদায় নিশ্চিত করা; বিদ্যমান জটিলতা নিরসনে প্রয়োজনীয় প্রজ্ঞাপন ও আদেশ জারি এবং ভ্যাট কর্মকর্তাদের স্বেচ্ছাক্ষমতা কমিয়ে আনা।
জানা যায়, ‘মূল্য সংযোজন কর ও সম্পূরক শুল্ক আইন ২০১২’-এর আওতায় ইতোমধ্যেই ‘মূল্য সংযোজন কর ও শুল্ক বিধিমালা ২০১৬’ প্রণয়ন করা হয়েছে। ভ্যাট কর্তৃপক্ষ ও করদাতার মধ্যে বিরোধ বা আপত্তিসমূহ দ্রুত নিষ্পত্তির লক্ষ্যে ‘মূল্য সংযোজন কর আইন ১৯৯১’-এ ‘বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তি’ (এডিআর)-এর বিধান সংযোজন করা হয়েছে। আসন্ন বাজেটে ‘এডিআর সেল’ গঠনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। এর ফলে বিকল্প বিরোধ নিষ্পত্তির মাধ্যমে ভ্যাট আদায় কার্যক্রম আরও গতিশীল হবে বলে মনে করছে এনবিআর।
অন্যান্যের মধ্যে ভ্যাট আদায় বাড়াতে আগামী ১ জুলাই থেকে ইএফডি/ইএফডিএমএস স্থাপন, ব্যবহার ও ডাটা ব্যবস্থাপনা কার্যক্রম চালু করা হচ্ছে। দেশের ব্যবসায়ীদের একটি বড় অংশ খুচরা পর্যায়ে পণ্য বিক্রি করে থাকেন। এ পদ্ধতি চালু হলে রাজস্ব আদায়ের পরিধি ব্যাপক বাড়বে, ভ্যাট ফাঁকির প্রবণতা কমবে এবং ভ্যাট বিভাগ একটি বড় ধাপ অতিক্রম করবে।
এছাড়া ‘মূল্য সংযোজন কর আইন ১৯৯১’-এ অর্থদন্ড আরোপের ক্ষেত্রে ‘ক্রিমিনাল ল অ্যামেন্ডমেন্ট অ্যাক্ট ১৯৫৮’-এর আওতায় নিয়োগকৃত স্পেশাল জজ আদালতে বিচারিক কার্যক্রম গ্রহণ করার বিধান সংযোজন করা হয়েছে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]