• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » আগামীকাল বাজেট, সংস্কৃতিখাতে ন্যূনতম ১ শতাংশ বরাদ্দ চান সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্বরা


আগামীকাল বাজেট, সংস্কৃতিখাতে ন্যূনতম ১ শতাংশ বরাদ্দ চান সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্বরা

আমাদের নতুন সময় : 12/06/2019

দেবদুলাল মুন্না: আগামীকাল ঘোষিত হবে নতুন অর্থবছরের বাজেট। আসন্ন বাজেটে সংস্কৃতি খাতে নুন্যতম ১ শতাংশ বরাদ্দ চান সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্বরা। নাট্যজন রামেন্দু মজুমদার বলেন, ‘আমরা দীর্ঘদিন বলে আসছি, দেশের মোট বাজেটের ১ শতাংশ যেন সংস্কৃতির জন্য রাখা হয়। জঙ্গিবাদ ও সাম্প্রদায়িকতা রুখতে যদি দীর্ঘমেয়াদি পরিকল্পনা করতে হয়, তাহলে প্রগতিশীল ও মানবতাবাদী সংস্কৃতিচর্চার কোনো বিকল্প নেই। এ জন্য এ খাতে বাজেট বাড়ানো দরকার। সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটের সভাপতি গোলাম কুদ্দুছ বলেন, ‘আমরা অতীতে দেখেছি সংস্কৃতি খাতেই সবচেয়ে কম বরাদ্দ হয়। অথচ সংস্কৃতিই হচ্ছে সবকিছুর সিডিয়েটর। জাতীয় বাজেটের মাত্র দশমিক শূন্য ৯ শতাংশ, যা সংস্কৃতির বাজেট হিসেবে অতি নগণ্য। আমি মনে করি, জাতীয় বাজেটের ন্যূনতম ১ শতাংশ দেশের সাংস্কৃতিক উন্নয়নে বরাদ্দ রাখা উচিত।’
শিমুল ইউসুফ বলেন, ‘ভাবতে অবাক লাগে, এই ঢাকা শহরে উত্তরা, বারিধারা, গুলশানের মতো অভিজাত এলাকায় কোনো সাংস্কৃতিক কেন্দ্র নেই! তাহলে সংস্কৃতি বাঁচবে কীভাবে? অথচ এসব জায়গায় খাবারের দোকান আর মার্কেটের অভাব নেই। ঢাকা এখন খাবার ও মার্কেটের শহরে পরিণত হয়েছে।’
নাট্যজন রহমত আলী বলেন, ‘আমাদের দেশে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয় আছে ঠিকই, কিন্তু এর কর্মপরিধি সংকুচিত। এ মন্ত্রণালয়ের অধীনে থাকা শিল্পকলা একাডেমি, শিশু একাডেমি ও বাংলা একাডেমির মূল কাজ বিভিন্ন অনুষ্ঠান আয়োজন করা। সবচেয়ে বড় নেটওয়ার্ক শিল্পকলা একাডেমির। জেলা ছাড়াও এখন উপজেলায় এটি বিস্তৃত হচ্ছে। অনুষ্ঠান আয়োজন ও কিছু প্রশিক্ষণ দেওয়া ছাড়া জেলা শিল্পকলা একাডেমির অন্য কোনো কাজ নেই।’
শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী বলেন, ‘শিল্পকলা একাডেমি এখন উপজেলা পর্যায়ে। সেগুলোর কাজ শেষ করা দরকার। তা ছাড়া শচীন দেববর্মন থেকে সৈয়দ শামসুল হক পর্যন্ত ১৫ জন ব্যক্তিত্বের নামে আমরা ইনস্টিটিউট করছি। এসবের জন্য?যথেষ্ট অর্থ দরকার। তাই এবারে আমাদের খাতে ভালো বাজেট চাই। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]