ঢাকা- কলকাতায় মুক্তির অপেক্ষায় অরিনের চার ছবি

আমাদের নতুন সময় : 12/06/2019

ইমরুল শাহেদ : ঢাকা এবং কলকাতার ব্যস্ত অভিনেত্রী অরিনের দুই ইন্ডাস্ট্রিতে চারটি ছবি মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। ঢাকার নির্মাতা মোস্তাফিজুর রহমান বাবুর গার্মেন্টস শ্রমিক জিন্দাবাদ, মোহাম্মদ আসলামের জান বেগম এবং কলকাতার নির্মাতা রঞ্জন চৌধুরীর রংমহল ও অরিন্দম বসুর আরক্ত মুক্তি পাবে আগামী কয়েক মাসের মধ্যেই। এই ঈদে তিনি কাজ করেছেন আজগর চ্যাম্পিয়ন নামে একটি নাটকে। এটি পরিচালনা করেছেন ফারুক হোসেন।
অরিন জানান, এছাড়া গত ১ জুন দুই বাংলাকে কেন্দ্র করে প্রতিবছর জনপ্রিয় টেলিসিনে অ্যাওয়ার্ড অনুষ্ঠানটি কলকাতার নজরুল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেখানে তিনি একক নৃত্যের পারফরম্যান্স করেছেন। অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেছে মৃন্ময় কাঞ্জিলাল। তাছাড়া তৃণা ফিল্মসের ব্যানার থেকে শিল্পীদের সম্মাননা দেয়া হয়। এ সময় সেখানে বাংলাদেশের আরো বেশ কিছু অভিনয়শিল্পী উপস্থিত ছিলেন। তার মধ্যে রয়েছেন জয়া আহসান, চঞ্চল চৌধুরী, জাকিয়া বারী মম, ফারুক আহমেদ ও দেবাশীষ বিশ্বাস। অনুষ্ঠানটি কালার্স বাংলা এবং বাংলাদেশি কোনো বেসরকারি চ্যানেলে সম্প্রচারিত হবে।
অরিন জানান, তিনি আসা-যাওয়া করেই কলকাতার ছবিতে কাজ করছেন। কলকাতায় বাসা ভাড়া নেননি। যেসব ছবিতে কাজ করেন, সেসব ছবির পক্ষ থেকেই তার থাকার আয়োজন করা হয়। উল্লেখ করার বিষয় হলো দেশীয় তারকারা যখন বিদেশে গিয়ে কাজ করে তখন আনন্দে মনটা ভরে উঠে। কিন্তু যে শিল্প থেকে খ্যাতি নিয়ে তারা বিদেশে যান এবং সেখানকার সাময়িক মোহে সিক্ত হয়ে দেশীয় কলা-কুশলীদের দুর্নাম করেন তখন তাদের প্রতি এক ধরনের অনীহা তৈরি হয়। এদেশ থেকে বিদেশ গিয়ে যারা নিয়মিত কাজ করছিলেন তাদের মধ্যে অরিন ছাড়াও রয়েছেন ফেরদৌস, জয়া আহসান । এরপর তাদের সঙ্গে পরে যুক্ত হন নূসরাত ফারিয়া এবং শাকিব খান। কিন্তু বিদেশের মাটিতে এমনকি ঘটলো যে, তারা আবারো স্বদেশমুখী হয়ে পড়েছেন। তিনি বলেন, এদেশের শিল্পীদের জন্য কলকাতায় কোনো সমস্যা তৈরি হয়েছে কিনা আমি জানি না। আমি সেখানকার স্থানীয় ছবিতে নিয়মিত কাজ করছি। ইতোমধ্যে আমার তিনটি ছবির কাজ শেষ হয়ে গেছে। সেগুলোর মধ্যে রয়েছে অপরাজেয়, আমার ভাই এবং শটকাট। এ ছবিটিতে অপু বিশ্বাসও কাজ করেছে। আমার আরক্ত এবং রংমহল মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। তিনি জানান, সেদেশের আইন অনুসারে তিনি ওয়ার্ক পারমিট নিয়েই কাজ করছেন। এদেশের দর্শক তার অভিনীত ছবিগুলো দেখতে পারবেন বিনিময়ের মাধ্যমে আসলেই।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]