প্রযুক্তি জায়ান্টের সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদে গণমাধ্যমগুলোর প্রতি টাইমস সম্পাদকের আহ্বান

আমাদের নতুন সময় : 12/06/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : ব্রিটিশ গণমাধ্যম টাইমস সম্পাদক জন উইথারো সকল গণমাধ্যমকে গুগল এবং ফেসবুকের মতো ডিজিটাল জায়ান্টের সঙ্গে সম্পর্কচ্ছেদ করার আহ্বান জানিয়েছেন। সোসাইটি অব এডিটরস এর বার্ষিক সেচওয়েল লেকচারে তিনি এই আহ্বান জানান। এছাড়াও ব্রিটিশ সরকারি গণমাধ্যম বিবিসিও দ্রুত সাবসক্রিপশন সার্ভিসৈ আসতে বাধ্য হবে বলেও পূর্বানুমান করেন তিনি। সোসাইটি অব এডিটরস। যুক্তরাজ্যের ইতিহাসে সর্বাধিক সময় ধরে সম্পাদকের দায়িত্ব পালন করা জন উইথারো আরো বলেছেন, মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সরকার যদি আরো একবার নির্বঅচিত হয়, তবে হয়তো টেক জায়ান্টদের টেক্কা দেও্যয়া সম্ভব হবে। তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রাপ্য ডিজিটাল বিজ্ঞাপনগুলো ফেসবুক এবং গুগল একরকম কেড়ে নিয়েছে। তারা নিজেদের প্লাটফর্ম ব্যবহার করে সস্তায় বিজ্ঞাপন নিচ্ছে। তারা বাজারমূল্য বিবেচনায় না নিয়েই এসব বিজ্ঞাপন গ্রহণ করছে। তারা কোন নীতিমালার আওতায় নেই, তাদের কেউ নজরদারি করেনা, তাদের অবশ্যই বাণিজ্যিক সফলতা রয়েছে। কিন্তু এর মানে এই নয়, তারা ইচ্ছেমতো মূল্য নির্ধারণ করবে।’
গত সোমবার সন্ধ্যায় মধ্য লন্ডনের স্টেশনারস হলে এই লেকচার অনুষ্ঠিত হয়। এই লেকচারের বিষয় ছিলো, ‘আধুনিক ডিজিটাল যুগে কিভাবে গুনগত সাংবাদিকতার প্রতি বিশ্বাস বাড়িয়ে টিকে থাকা যায়।’ টাইমস সম্পাদক বলেন, ‘গঠনগত সাংবাদিকতা হলো একটি উপায়, যার মাধ্যমে মূলধারার সাংবাদিকতার প্রতি পাঠকদের বিশ্বাস আবারও ফিরিয়ে আনা যায়। এজন্য নিজেদের কাজে নতুন আরো একটি উপাদান যোগ করা বাধ্যতামূলক। আমাদের সংবাদ পরিবেশনের নেতিবাচকতার কারণে মানুষের বিশ্বাস হারিয়েছে। পুরাতন ধারণা বদলাতে হবে। পাঠকদের আরো সম্পৃক্ত করতে হবে। অপরাধের অন্ধকার কাঁদা খুঁড়ে আমাদের সংবাদ বের করে নিয়ে আসতে হবে। অবশ্যই আমাদের তা করতে হবে। গঠনমূলক সংবাদ পাঠককে আরো ক্ষমতাবান করবে। আরো পাঠক ক্ষমতা বাড়লে আমরাও ক্ষমতাবান হবো।’
জন উইথারো মনে করেন, গণমাধ্যমের চরিত্র পালটে গেছে। এই বদল খুব জরুরী ছিলো। নাহয় তথাকথিত ডিচিটাল মিডিয়ার সঙ্গে টিকে থাকা খুব কঠিন। তিনি মনে করেন বিবিসির মতো সরকারি গণমাধ্যমগুলোও তাদের চরিত্র বদলাবে। স্বেচ্ছসেবামূলক সম্প্রচারের বদলে তারাও অর্থের মাধ্যমে সম্প্রচারে যাবে বলে মনে করেন এই অভিজ্ঞ ও প্রবীণ সম্পাদক। তিনি সকল গণমাধ্যমকে টেক জায়ান্টগুলোর সঙ্গে সম্পর্কোচ্ছেদের আহ্বান জানান। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]