সেই আমিটা

আমাদের নতুন সময় : 12/06/2019

কাকলী সাহা

আমি কখনো আর কেউ হতে চাইনি
এই আমিটাকে নিয়েই আমার চলন
এই আমিতে আমার খুশি কী অখুশি, ভাবিনি
এসব বিলাসিতা হয়তো আমায় মানাতো না।
তবু এই আমার মধ্যেই খুঁজে দেখেছি কতো আমিকে
খুঁড়ে খুঁড়ে বের করেছি কতো হরোপ্পা, মহেঞ্জোদারো,
লুকিয়ে রাখা পায়ের মল, সাজিয়ে রাখা কাচের চুড়ি।

ইচ্ছে করে একবার সেই আমিতেই ডুব দিয়ে
চলে যাই তোমার পারস্য উপসাগরে।
চলে যাবো বললেই তো আর যাওয়া যায় না।
আমার সে-ডুব সাঁতারটার বোধহয় শেষ নেই
সাত সাগর পার হয়ে গিয়েও তল পাই না আমি
আমার ক্ষুদ্রতা আমাকে ছুঁড়ে ফেলে দেয়
কোনো এক অলস দুপুরে, নিরস শুষ্ক বালুচরে।

ইচ্ছে করে জনজোয়ারে গা ভাসিয়ে দিই শেষবার
কিন্তু সৃষ্টিছাড়া আমিটা কেমন যেন বেচাল, বেআক্কেলে
কেটে যাওয়া দুধের মতোই ছন্নছাড়া সেই আমিটা
ঢেউ কেটে কেটে অথবা ঢেউয়ের সাথে সাথে
মান ভুলে কতোবার এক্কা-দোক্কা খেলতে চাইলো
কিন্তু স্রোতের এতো মান হলো যে,আমি হেরে গেলাম।

কতোবার চেয়েছি মানুষের মিছিলে পা-মেলাতে
ছেঁড়া সুতো জোড়া দিয়ে চলতে
কেটে যাওয়া ঘুড়ির কদর বুঝতে বুঝতে
বয়ে গেলো এতটুকু একফালি ঘাসের জীবন।
চোরকাঁটা হয়ে জুড়ে যেতে চাইলাম মখমলের নকশায়
আমার বেআক্কেলে হ্যাংলাপনা দেখে কী যে বেজায় রাগ!
আমার আমিটা ঘোলাজলে মুখ লুকোতে চাইলো;
কিন্তু সেই আমিটাই আমাকে সবার মাঝে চিনিয়ে দিলো,
পৃথক করলো পড়ে থাকা আমের আঁটির মতোই।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]