আজ সংসদে আগামী অর্থবছরের  বাজেট পেশ করবেন অর্থমন্ত্রী

আমাদের নতুন সময় : 13/06/2019

সোহেল রহমান  : আজ বৃহস্পতিবার আগামী ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেট পেশ করা হবে। আওয়ামী লীগ নেতৃত্বাধীন মহাজোট সরকারের তৃতীয় মেয়াদের এটি প্রথম বাজেট। অন্যদিকে অর্থ মন্ত্রী হিসেবে আ হ ম মুস্তফা কামালেরও এটি প্রথম বাজেট পেশ। বিকেল ৩টায় জাতীয় সংসদে চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেট, ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেট ও অর্থবিল ২০১৯ পেশ করবেন তিনি। এর আগে জাতীয় সংসদে অনুষ্ঠেয় মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠকে এগুলো অনুমোদন দেয়া হবে।

সূত্রমতে, আগামী ২০১৯-২০ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের সম্ভাব্য আকার বা ব্যয়ের পরিমাণ হচ্ছে ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা। এটি চলতি অর্থবছরের মূল বাজেটের তুলনায় ৫৮ হাজার ৬১৭ কোটি টাকা বেশি। চলতি অর্থবছরে বাজেটের মোট আকার ধরা হয়েছে ৪ লাখ ৬৪ হাজার ৫৭৩ কোটি টাকা।

অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, এবারের বাজেট বক্তৃতায় একটি বড় ধরনের পরিবর্তন আসছে। গোড়ার দিকে বাজেট বক্তৃতা ছিল দুই খ-ের। এর একটি ছিল বাজেট বক্তৃতা এবং অপরটি ছিলো রাজস্ব সংক্রান্ত। পরবর্তীতে (২০০০ সালের দিকে) এটি একটি খ-ে নিয়ে আসা হয় এবং এর আকার দাঁড়ায় ২শ পৃষ্ঠার কাছাকাছি। গতবারের বাজেট পর্যন্ত এই ধারা চলমান ছিলো। কিন্তু এবারের বাজেট বক্তৃতার বিশেষত্ব হচ্ছেÑএর আকার হচ্ছে খুব সংক্ষিপ্ত, ৫০ থেকে ৬০ পৃষ্ঠার মধ্যে। এর মধ্যে প্রায় ৪০ পৃষ্ঠা জুড়ে থাকছে বাজেটের বিভিন্ন পরিসংখ্যান এবং বর্তমান সরকারের বিগত দুই মেয়াদের নানা আর্থসামাজিক উন্নয়নের ফিরিস্তি। অবশিষ্ট পৃষ্ঠাগুলো বরাদ্দ রাখা হয়েছে রাজস্ব সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ের জন্য। সংক্ষিপ্ত এই বাজেট বক্তৃতার শিরোনাম রাখা হয়েছেÑ‘সম্মৃদ্ধির সোপানে বাংলাদেশ : সময় এখন বাংলাদেশের, সময় এখন আমাদের’।

সূত্রমতে, বাজেট বক্তৃতা সংক্ষিপ্ত হলেও বাজেট পেশের পাশাপাশি মাল্টি মিডিয়া প্রজেকশনের  মাধ্যমে স্বাধীনতার পর থেকে এ পর্যন্ত বিভিন্ন মেয়াদে থাকা আওয়ামী লীগ সরকারের বিভিন্ন উন্নয়ন কর্মকা-ের চিত্র তুলে ধরা হবে। এছাড়া আর্থসামাজিক সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয় নিয়ে বেশ কয়েকটি সংক্ষিপ্ত ডকুমেন্টারি চিত্রও উপস্থাপন করা হবে। একটি বেসরকারি টেলিভিশনের কর্ণধার এসব ডকুমেন্টারি চিত্রগুলো তৈরির দায়িত্বে ছিলেন বলে জানা গেছে।

সূত্রমতে, বরাবরের মতো এবারও ডিজিটাল পদ্ধতিতে অর্থাৎ পাওয়ার পয়েন্টের মাধ্যমে বাজেট উপস্থাপন করা হবে। মূল বাজেট বক্তৃতাসহ এবারের বাজেট পুস্তিকার সংখ্যা হতে পারে ১২টি।  এগুলোর মধ্যে রয়েছেÑবাজেটের সংক্ষিপ্তসার; বার্ষিক আর্থিক বিবৃতি; সম্পূরক আর্থিক বিবৃতি; সংযুক্ত তহবিল-প্রাপ্তি; মধ্যমেয়াদি সামষ্টিক অর্থনৈতিক নীতি বিবৃতি; মঞ্জুরি ও বরাদ্দের দাবীসমূহ (পরিচালন ও উন্নয়ন); বিস্তারিত বাজেট (উন্নয়ন); মধ্যমেয়াদি বাজেট কাঠামো, বাংলাদেশ অর্থনৈতিক সমীক্ষা ২০১৯; ডিজিটাল বাংলাদেশের পথে অগ্রযাত্রা : হালচিত্র; জলবায়ু সুরক্ষা ও উন্নয়নের লক্ষ্যে বাজেট প্রতিবেদন; জেন্ডার বাজেট প্রতিবেদন; শিশু বাজেট; রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠানসমূহের ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট সংক্ষিপ্তসার ইত্যাদি ওয়েবসাইটে প্রকাশসহ জাতীয় সংসদে পেশ করা হবে। এছাড়া অর্থ মন্ত্রণালয়ের আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ কর্তৃক প্রণীত ব্যাংক, বীমা ও আর্থিক প্রতিষ্ঠানসমূহের কার্যাবলী ২০১৮-১৯ জাতীয় সংসদে পেশ করা হবে।

অর্থ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, আগামী ১৬ জুন জাতীয় সংসদে চলতি ২০১৮-১৯ অর্থবছরের সংশোধিত বাজেটের ওপর আলোচনা শুরু হবে এবং এটি পাস হবে ১৭ জুন। নতুন অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সাধারণ আলোচনা শুরু হবে ১৮ জুন এবং চলবে ২৭ জুন পর্যন্ত; ২৯ জুন দায়যুক্ত ব্যয়ের ওপর আলোচনা, অর্থবিল পাস এবং প্রধানমন্ত্রী ও অর্থমন্ত্রী প্রস্তাবিত বাজেটের ওপর সমাপনী বক্তব্য রাখবেন। বাজেট পাস হবে ৩০ জুন।

অর্থ মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা যায়, সরকারি ওয়েবসাইট লিংক িি.িনধহমষধফবংয. মড়া.নফ, িি.ি নফঢ়ৎবংংরহভড়ৎস.ঢ়ড়ৎঃধষ.মড়া.নফ,    থেকে বাজেটের সকল তথ্যাদি ও গুরুত্বপূর্ণ দলিল যে কোন ব্যক্তি বা প্রতিষ্ঠান পাঠ ও ডাউনলোড করতে পারবেন এবং দেশ বা বিদেশ থেকে উক্ত ওয়েবসাইটের মাধ্যমে ফিডব্যাক ফরম পূরণ করে বাজেট সম্পর্কে মতামত ও সুপারিশ প্রেরণ করা যাবে। প্রাপ্ত সকল মতামত ও সুপারিশ বিবেচনা করা হবে। জাতীয় সংসদ কর্তৃক বাজেট অনুমোদনের সময়ে ও পরে তা কার্যকর করা হবে। সম্পাদনা : রেজাউল আহসান

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]