একমাত্র শাকিব খানই প্রি-রিলিজ গ্যারান্টি

আমাদের নতুন সময় : 13/06/2019

ইমরুল শাহেদ : একথা বলেছেন পরিচালক সমিতির সাধারণ সম্পাদক বদিউল আলম খোকন। তার সঙ্গে সহমত পোষণ করেন পরিচালক মিজানুর রহমান মিজান। তিনি রাগী এবং তোলপাড় নামে দুটি ছবি নির্মাণ করছেন। কোনোটিতেই শাকিব খান নেই। কিন্তু চলচ্চিত্র ব্যবসায়ের বাস্তবচিত্র তুলে ধরতে গিয়ে তিনি বদিউল আলম খোকনের মন্তব্যের সমর্থন করেন। বদিউল আলম খোকন বলেন, শাকিব খান হলেই ছবি চলে এ ধরনের ধারণা একেবারেই ভুল। তাহলে তো নোলক ছবিটিও দর্শকরা দেখতো। পাসওয়ার্ড এবং নোলক একইসঙ্গে মুক্তি পেয়েছে এবং দুটি ছবিই শাকিব খান অভিনীত। ছবি চালাতে হলে ছবিতে গল্প লাগবে এবং ছবিটি যতœ নিয়ে নির্মাণ করতে হবে।
তাহলে একটি সুনির্মিত ছবিতে অন্য নায়ক থাকলে চলবে না কেন জানতে চাওয়া হলে বদিউল আলম খোকন বলেন, এক্ষেত্রে প্রধান বাধা প্রদর্শকরা। তারা শাকিব খান না হলে টাকা দিতে চান না। ছবি মুক্তি পাওয়ার পর প্রমাণ হবে ছবিটি কি? তার আগে মুক্তির সময় শাকিব খান না থাকলে প্রদর্শকরা টাকা দিতে চান না। একমাত্র শাকিব খানই একটি ছবির জন্য প্রি-রিলিজ গ্যারান্টি।
এর সঙ্গে পরিচালক মিজানুর রহমান যোগ করে বলেন, ‘গেলো ঈদে চারটি ছবি মুক্তি পেয়েছে। তার মধ্যে তিনটিই শাকিব খান অভিনীত। তার মধ্যে রয়েছে সুপার হিরো, চিটাগাইঙ্গা মাইয়া নোয়াখাইল্যা পোয়া এবং পাংকু জামাই। কিন্তু শাকিব খানের ছবিগুলোর ব্যবসাকে ছাপিয়ে গেছে পোড়ামন-২ ছবিটি। এ ছবিটির সব শিল্পীই ছিলো প্রায় নবাগত, যাদের কেউ তেমন একটা চিনেন না। তাহলে আমরা শাকিব খানকে নিয়ে এতো মাথা ঘামাই কেন। নির্মাতাদের উচিত গল্প এবং নির্মাণের প্রতি নজর দেয়া ও আপসহীন হওয়া। একসময় এসব নতুনরাই হয়ে ওঠবেন শাকিব খানের মতো প্রি-রিলিজ গ্যারান্টি। শাকিব খান যখন নতুন ছিলেন তখন তো তিনি প্রি-রিলিজ নিশ্চয়তা ছিলেন না।’




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]