• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » ঢাকার পুরান কারাগারের পুকুরে নারীর মরদেহ দুই বাসের মধ্যে চাপা পড়ে চালকের মৃত্যু


ঢাকার পুরান কারাগারের পুকুরে নারীর মরদেহ দুই বাসের মধ্যে চাপা পড়ে চালকের মৃত্যু

আমাদের নতুন সময় : 13/06/2019

মাসুদ আলম ও মোস্তাফিজুর রহমান : পুরান ঢাকার নাজিমুদ্দিন রোডের পুরাতন কারাগারের স্টাফ কোয়াটার পুকুর থেকে  আজমেরি বেগম (২৬) নামে এক নারীর মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। গত মঙ্গলবার মধ্যরাতে তার লাশ উদ্ধার করা হয়। তবে স্থানীয়রা বলছেন মরদেহ উদ্ধারের ঘণ্টাখানেক আগে নারীর কণ্ঠে ‘বাঁচাও বাঁচাও’ চিৎকার শুনেছেন তারা। পুলিশ ঘটনাস্থলের আশপাশের প্রায় ২০ জনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে।

নিহতের বাবা বাহার উদ্দিন বলেন, আমার মেয়ে ধার্মিক ছিলেন। মহাখালী একটি প্রতিষ্ঠান থেকে ডিপ্লোমা করার পরে মানসিকভাবে কিছুটা ভারসাম্যহীন হয়ে পড়ে। মঙ্গলবার রাত ১০টায়  বাসা থেকে বের হয় সে। পরে  রাতে পুলিশ আমাদেরকে খবর দিলে ঘটনাস্থলে গিয়ে তার লাশ শনাক্ত করি। পরিবারের সঙ্গে ১১২/৩ আবুল হাসনাত রোড বংশাল এলাকায় থাকতো আজমেরি। এক ভাই ৬ বোনের মধ্যে সে পঞ্চম ছিল।

চকবাজার থানার এসআই জাহাঙ্গীর আলম জানান, কারাগারের ভেতরে মসজিদের পেছনের পুকুর থেকে ভাসমান অবস্থায় আজমেরির লাশ উদ্ধার করা হয়। অবিবাহিত আজমেরি মানসিক অসুস্থতায় ভুগছিলেন। মঙ্গলবার তাকে চিকিৎসকের কাছে নিয়ে গিয়েছিলেন তার বাবা। মসজিদটি সবার জন্য উন্মুক্ত ছিল। যে কেউ ওই পুকুরে অজু করতে যেতে পারতেন। পুকুরটির দক্ষিণ পাশের অংশ দিয়ে মানুষ যাতায়াত করে। আশপাশে কয়েকটি ঘরও ছিল। সেখানকার লোকজন বসবাস করতো। মৃত্যুর বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের রিপোর্ট পেলেই মৃত্যুর কারণ জানা যাবে।

এদিকে মোহাম্মদপুর বেড়িবাঁধ এলাকায় দুই বাসের মধ্যে চাপা পড়ে তোফাজ্জল হোসেন মীর (৫৫) নামে এক সিএনজিচালিত অটোরিকশা চালক মারা গেছেন। গতকাল বুধবার ভোরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় আরও ৪ যাত্রী আহত হয়েছে।

মোহাম্মদপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, বেড়িবাঁধের তিন রাস্তার মোড়ে একটি বাস আরেকটি বাসকে ওভারটেক করার সময় তোফাজ্জল তার সিএনজিচালিত নিয়ে মাঝখানে পড়েছিলেন। দুর্ঘটনার পর তাকে ঢাকা মেডিকেলে নেয়া হলে চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনার সময় রাস্তায় লোক ও যানবাহন চলাচল কম ছিল। ফলে বাস দুটি দ্রুত পালিয়ে যায়। তবে একটি বাস ব্রাদার্স পরিবহনের বলে জানা গেছে। জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে। নিহতের গ্রামের বাড়ি ভোলার বোরহানউদ্দিন এলাকায়। স্ত্রী, তিন ছেলে ও দুই মেয়ে নিয়ে মোহাম্মদপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থান এলাকায় থাকতেন তিনি। সম্পাদনা : ওমর ফারুক

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]