• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » নার্স তানিয়া হত্যা ও ধর্ষণ মামলার দুই আসামিকে ধরে দিতে পুরস্কার ঘোষণা


নার্স তানিয়া হত্যা ও ধর্ষণ মামলার দুই আসামিকে ধরে দিতে পুরস্কার ঘোষণা

আমাদের নতুন সময় : 13/06/2019

মনোয়ার হোসাইন : কিশোরগঞ্জে চলন্ত বাসে কটিয়াদীর শাহিনুর আক্তার তানিয়াকে গণধর্ষণ শেষে হত্যার ঘটনায় এক মাসেরও বেশি সময় পেরিয়ে যাওয়ার পরও ধরা পড়েনি ধর্ষক বোরহান। তাকে ধরতে বিভিন্ন স্থানে পুলিশ অভিযান পরিচালনা করলেও এখনও অধরা রয়ে গেছে তানিয়াকে ধর্ষণ ও হত্যাকা-ের অন্যতম এই আসামি। একইভাবে অধরা রয়ে গেছে বাসের সুপারভাইজার আল আমিন।

তারা যাতে দেশত্যাগ করতে না পারে সেজন্য তৎপর রয়েছে পুলিশ। বোরহান ও আল আমিনের খোঁজে তৎপর রয়েছে পুলিশ। আল আমিন পুলিশের চোখ ফাঁকি দিয়ে ঘটনার পর পরই আত্মগোপনে যায়। এরপর থেকে তার আর কোনো খোঁজ মিলছে না। তবে এরপর পৃষ্ঠা ৭, সারি

(শেষ পৃষ্ঠার পর)  পুলিশ বলছে, বোরহান ও আল আমিন যেখানেই থাকুক না কেন, তারা ধরা পড়বেই। তারা পুলিশের চোখ এড়িয়ে বেশিদিন থাকতে পারবে না।

জেলা পুলিশের একাধিক সূত্র জানিয়েছে, বোরহান ও আলআমিনকে গ্রেফতারের ক্ষেত্রে কেউ সহযোগিতা করলে তাকে পুলিশের পক্ষ থেকে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কারের ঘোষণাও দেয়া হয়েছে।

নিহত শাহিনুর আক্তার তানিয়া কটিয়াদী উপজেলার লোহাজুরী ইউনিয়নের বাহেরচর গ্রামের গিয়াস উদ্দিনের মেয়ে। তিনি ঢাকার ইবনে সিনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের কল্যাণপুর শাখায় সিনিয়র স্টাফ নার্স হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

মামলার তদন্ত  কর্মকর্তা বাজিতপুর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. সারোয়ার জাহান বলেন, বোরহান ও আল আমিনকে গ্রেফতারে অভিযান চলছে। কিশোরগঞ্জের পুলিশ সুপার মাশরুকুর রহমান খালেদ জানান, সর্বোচ্চ মহল থেকে তদারকি করা হচ্ছে। তাই তাদের গ্রেফতার সময়ের ব্যাপার মাত্র। সম্পাদনা : ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]