• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » ভোলায় ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার ঘটনাকে আড়াল করতে মা-মেয়েকে অপহরণ


ভোলায় ধর্ষণে অন্তঃসত্ত্বা হওয়ার ঘটনাকে আড়াল করতে মা-মেয়েকে অপহরণ

আমাদের নতুন সময় : 13/06/2019

মশিউর রহমান : ভোলার তজুমদ্দিন উপজেলার চাঁদপুর ইউনিয়নের দুর্গম চর মোজাম্মেলের বাসিন্দা ধর্ষণের পর অন্তঃসত্ত্বা হওয়া যুবতী মেয়ে (২২) ও তাঁর মাকে(৪৮) গত রোববার অপহরণ করেছে ধর্ষক আ: রবের লোকজন। এ ঘটনায় মঙ্গলবার অপহৃতদের স্বজন বিবি হাজেরা বাদি হয়ে তজুমদ্দিন থানায় ৪ জনকে আসামি করে মামলা দায়ের করেছে। এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত গতকাল বুধবার বিকাল ৫টা পর্যন্ত মা-মেয়েকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। তবে মামলার প্রধান আসামি আ: রব পুলিশের হাতে গ্রেফতার হয়েছে।

মামলার এজাহারে (অভিযোগপত্র) বাদি লিখেছেন, গত ডিসেম্বর মাসে ঘরে একা পেয়ে আ: রব জোরপূর্বক স্বামী পরিত্যক্তা মেয়েকে (বাদির বোনের মেয়ে) ধর্ষণ করে। অসহায় মেয়েটি ঘটনা মা-বাবাকে জানালে চরের এরপর পৃষ্ঠা ৭, সারি

(শেষ পৃষ্ঠার পর)  গন্যমান্যদের কাছে বিচার দাবি করে। এ সময় আ: রব ও তাঁর লোকজন ওই যুবতী মেয়ে ও তাঁর বাবা-মার পরিবারকে চর থেকে উৎখাতের হুমকি দেয়। প্রায় সময় ঘরে ঢুকে আ: রব ওই যুবতীকে ধর্ষণ করতো। গত ৬ মাসে কমপক্ষে ৫০ বার ধর্ষণ করেছে মেয়েটি বার বার ধর্ষণের ফলে অন্তঃসত্ত্বা হয়ে যায়। এ ঘটনাকে ধামাচাপা দিতে গত রোববার সকালে উপজেলার দুর্গম চর মোজাম্মেলের মুক্তিযোদ্ধা বাজার এলাকার লাঠিয়াল সরদার আ: রব, কামাল জমিদার, শাহে আলম, মো: সেলিমসহ ১০-১২জন লাঠিসোটা নিয়ে তাঁর বোন ও বোনের মেয়ে (অন্তঃসত্ত্বা) কে ট্রলারে তুলে নিয়ে যায়। কোথায় নিয়েছে জানেন না।

তজুমদ্দিন থানার ওসি ফারুক আহম্মদ বলেন, অভিযোগ পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত হয়েছে। এঘটনায় মামলার প্রধান আসামি আ: রবকে পুলিশ আটক করতে সক্ষম হয়েছে। অপহৃতদের উদ্ধার ও বাকী আসামিদের আটকের চেষ্টা চলছে বলে তিনি জানান। সম্পাদনা : ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]