ওপেক থেকে যুক্তরাষ্ট্রের তেল আমদানি কমছে, বাড়ছে চীনের

আমাদের নতুন সময় : 19/06/2019

নূর মাজিদ : ওপেক জোটের তেল কেনার দীর্ঘ আসক্তি হারাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। একইসময়, তেল উপাদক দেশগুলোর জোটটির সরবরাহের প্রতি নির্ভরতা বাড়ছে চীনের। চলতি বছরের মার্চে, ওপেক থেকে যুক্তরাষ্ট্রের তেল আমদানি চিত্র সেদিকেই ইঙ্গিত দেয়। মার্চে গত তিন দশকের ভেতর ওপেক সদস্য দেশগুলো থেকে সবচাইতে কম তেল রপ্তানি হয় যুক্তরাষ্ট্রে। গত বৃহ¯পতিবার ইউএস এনার্জি ইনফরমেশন অ্যাডমিনিস্ট্রেশন প্রকাশিত প্রতিবেদনে এই তথ্য জানানো হয়। সূত্র : সিএনএন।

সংস্থাটির প্রতিবেদন বলছে, মার্চে প্রতিদিন ১৫ লাখ ব্যারেল অপরিশোধিত জ্বালানি তেল ওপেক দেশগুলো থেকে আমদানি করা হয়। যা আবার বিগত দশকের তুলনায় ৭৫ শতাংশ কমেছে। এই কমে আসার পেছনে তিনি প্রধান কারণ কাজ করেছে। প্রথমটি হলো, যুক্তরাষ্ট্রের নিজস্ব তেল উত্তোলন শিল্পের বিপুল উৎপাদন। বাকি দুটি ভেনেজুয়েলার ওপর মার্কিন নিষেধাজ্ঞা এবং তেলের দরবৃদ্ধির লক্ষ্যে সৌদি আরবের সরবরাহ কমিয়ে আনার পদক্ষেপ।

এই বিষয়ে মার্কিন জ্বালানি ব্যবসায়ের বাণিজ্যিক পরামর্শক সংস্থা র‌্যাপিডান এনার্জির প্রেসিডেন্ট বব ম্যাকনেলি বলেন, ‘এই প্রবণতা যুক্তরাষ্ট্রের শেলওয়েল উত্তোলন বিপ¬ব এবং উপসাগরীয় আরব দেশগুলোর এশিয়ার দ্রুতবর্ধনশীল বাজার ধরার আগ্রহকে তুলে ধরেছে।’

তবে দীর্ঘদিন ধরেই বিদেশী উৎস থেকে তেল আমদানির ওপর নির্ভরশীলতা কমানোর লক্ষ্য নিয়েছিলো যুক্তরাষ্ট্র। এখনও অনেক মার্কিনীর মনে ১৯৭০-এর দশকে ওপেক আরোপিত নিষেধাজ্ঞার কারণে জ্বালানির জন্য ফুয়েল স্টেশনে দীর্ঘ গাড়ির লাইনে অপেক্ষা করার স্মৃতি তরতাজা। যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান দক্ষিনপন্থি জাতিয়তাবাদিরা বিষয়টিকে এক ইতিবাচক পরিবর্তন হিসেবেই দেখছেন।

এদিকে এমন সময়ে এই প্রতবেদন প্রকাশিত হলো যখন, হরমুজ প্রণালিতে দুটি তেলবাহী ট্যাংকারে হামলার ঘটনায় ইরান-যুক্তরাষ্ট্র সামরিক সংঘাতের ভয়ে বিশ্ববাজারে তেলের দর বাড়ছে। মার্কিন সরকারের প্রতিবেদনটি বাজারটির দর কমার ক্ষেত্রে সহায়ক হবে। কারণ, এখনও যুক্তরাষ্ট্রই বিশ্বের শীর্ষ জ্বালানি তেলের ভোক্তা।

এই বিষয়ে র‌্যাবোব্যাংকের জ্বালানি কৌশলবিদ রায়ান ফিটজমরিস বলেন, ‘আমরা (মধ্যপাচ্যের তেলের) ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে এনেছি। তবে এখনও এটা পুরোপুরি বন্ধ হয়নি। কৌশলগত রাজনৈতিক স¤পর্কের কারণে অচিরেই এমনটা হবে সেই আশা করাও সম্ভব নয়।’

অন্যদিকে ওপেকের ওপর চীনের নির্ভরশীলতা একইসময় বিপরীত দিকে অবস্থান নিয়েছে। বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহৎ অর্থনীতিটি এখন ওপেক থেকে রেকর্ড পরিমাণ জ্বালানি আমদানি করছে। এসঅ্যান্ডপি গে¬াবাল প¬্যাটজের বরাতে এই তথ্য জানানো হয়। এমনকি যুক্তরাষ্ট্র ছেড়ে চীনের কাছে তেল বিক্রি করেই ওপেক দেশগুলো নিজেদের অধিক ধন্য মনে করছে, বলে ব্যঙ্গোক্তি করেছে মার্কিন গণমাধ্যম সিএনএন।  গতবছর চীনের জ্বালানি চাহিদা ৩ শতাংশ বাড়ে, এটা বৈশ্বিক তেলের চাহিদা বৃদ্ধিতেও অবদান রাখে। সম্পাদনা : ইকবাল খান

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]