আগের স্ত্রীর মামলায় কণ্ঠশিল্পী সালমার স্বামী সাগর কারাগারে

আমাদের নতুন সময় : 04/07/2019

ইমরুল শাহেদ : কক্সবাজার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) অ্যাডভোকেট তাপস রক্ষিত জানিয়েছেন, আগের স্ত্রীর মামলায় ক্লোজআপ ওয়ান খ্যাত গায়িকা সালমা’র স্বামী সানাউল্লাহ নূরী সাগরের জামিন আবেদন নামঞ্জুর করে তাকে নারী ও শিশু নির্যাতন ট্রাইব্যুনাল-১-এর ভারপ্রাপ্ত বিচারক (জেলা জজ) মো. নূর ইসলাম জেল হাজতে প্রেরণ করেছেন। -জাগোনিউজ, কক্সবাজারনিউজ.কম। আদালত সূত্রে জানা গেছে, গত বছরের নভেম্বরে কক্সবাজার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এ সানাউল্লাহ নূরী সাগরের বিরুদ্ধে একটি মামলা দায়ের করেন সাগরের প্রথম স্ত্রী তাসনিয়া মুনিয়াত ওরফে পুষ্মীর মা দিলারা খানম (নম্বর-২৫৪, ধারা-নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইন, ২০০০ এর ১১(গ)/৩০)। মামলার বিবরণে বলা হয়, ময়মনসিংহ জেলার হালুয়াঘাটের সাখাওয়াত হোসেনের পুত্র সানাউল্লাহ নূরী ওরফে সাগর ২০ লাখ টাকা দেনমোহর দিয়ে ১/৫৩ নম্বর কাবিন মূলে ২০১৪ সালের ৩ জুলাই কক্সবাজার শহরের পূর্ব টেকপাড়া নিবাসী কক্সবাজার কমার্স কলেজের দর্শন বিভাগের অধ্যাপক আখতার আলম ও দিলারা খানমের কন্যা তাসনিয়া মুনিয়াত ওরফে পুস্পী’কে বিয়ে করেন। বিয়ের পর সাগর তার স্ত্রী থেকে যৌতুক দাবী করলে বিভিন্ন কিস্তিতে ৬ লাখ ৫০ হাজার টাকা নগদে ও চেকে সাগর’কে প্রদান করা হয়। ২০১৮ সালের ৫ সেপ্টেম্বর আরো ১০ লাখ টাকা যৌতুকের দাবীতে সানাউল্লাহ নূরী সাগর তার স্ত্রী তাসনিয়া মুনিয়াত’কে বেদম মারধর পূর্বক আহত করে বাড়ী থেকে বের করে দেয়। পরে তাসনিয়া মুনিয়াত’কে চিকিৎসা করানো হয়। এঘটনায় তাসনিয়া মুনিয়াতের মা বাদী হয়ে কক্সবাজারের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এ ২০১৮ সালের ১৯ নভেম্বর ৩ জনকে আসামী করে মামলা দায়ের করেন। আাসামীরা হলেন-সানাউল্লাহ নূরী সাগর, তার পিতা-সাখাওয়াত হোসেন, মাতা-সুরাইয়া। বিচারক দায়েরকৃত মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দেয়ার জন্য কক্সবাজারের পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) এর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার’কে নির্দেশ দেন। পিবিআই এর পুলিশ পরিদর্শক সিরাজুল ইসলাম দীর্ঘ তদন্ত শেষে ২০১৮ সালের ১০ ডিসেম্বর আদালতে তদন্ত প্রতিবেদন দাখিল করেন।

মামলায় উচ্চ আদালত থেকে সাগর আগাম জামিন নিয়েছিলেন। সেই জামিনের মেয়াদ শেষ হয় গত ৪ জুন। কিন্তু সেই সময় তারা আদালতে আত্মসমর্পণ করেননি। আসামিরা একমাস পর গতকাল বুধবার নি¤œ আদালতে হাজির হন। এসময় তার আইনজীবী জামিনের আবেদন করলে শুনানি শেষে বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে তাকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।
বাদী পক্ষে মামলা পরিচালনা করেন কক্সবাজার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর (এপিপি) অ্যাডভোকেট তাপস রক্ষিত বলেন, ‘মামলার প্রধান আসামি সালমার স্বামী সানাউল্লাহ নূরী ওরফে সাগরকে জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দিলেও তার বাবা-মাকে জামিন দেয়া হয়েছে।’ বিকেল ৪টায় তাকে কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়েছে বলে জানান কক্সবাজার কারাগারের জেলার রীতেশ চাকমা। সম্পাদনা : আবদুল অদুদ




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]