প্রবাসীরা এ অর্থবছরে রেকর্ড ১৬৪০ কোটি ডলার পাঠিয়েছে

আমাদের নতুন সময় : 04/07/2019

রমজান আলী : সদ্যবিদায়ী ২০১৮-১৯ অর্থবছরে ব্যাংকিং চ্যানেলে এক হাজার ৬৪০ কোটি ইউএস ডলার রেমিট্যান্স বা প্রবাসী আয় এসেছে, যা দেশের ইতিহাসে এক অর্থবছরে সর্বোচ্চ। আগের ২০১৭-১৮ অর্থবছরে এসেছিল এক হাজার ৪৯৮ কোটি ডলার। এই হিসাবে প্রবাসী আয় প্রবাহ বেড়েছে সাড়ে ৯ শতাংশ। এর আগে গত ২০১৪-১৫ অর্থবছরে সর্বোচ্চ এক হাজার ৫৩২ কোটি ডলার প্রবাসী আয় আসে। নতুন বাজেটে প্রণোদনা দেওয়ায় নতুন অর্থবছরেও প্রবাসী আয় প্রবাহ বাড়বে বলে মনে করছে বাংলাদেশ ব্যাংক।
কেন্দ্রীয় ব্যাংকের কর্মকর্তারা বলছেন, হু-ি প্রতিরোধসহ নানা পদক্ষেপ নেওয়ার ফলে বৈধ পথে প্রবাসী আয় আসার পরিমাণ বাড়ছে। বিশেষ করে ২০১৮ সালের শুরু থেকে বৈধ পথে প্রবাসী আয় প্রবাহ বৃদ্ধি অব্যাহত রয়েছে।
কেন্দ্রীয় ব্যাংকের প্রতিবেদনে দেখা যায়, অর্থবছরের শেষ মাস জুনে প্রবাসীরা পাঠিয়েছেন ১৩৪ কোটি ডলার। এর আগে ঈদকে কেন্দ্র করে গত মে মাসে ১৭৫ কোটি ডলার পাঠান প্রবাসীরা, যা একক মাসে সর্বোচ্চ।
বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র সিরাজুল ইসলাম বলেন, গত অর্থবছর জুড়েই রেমিট্যান্স প্রবাহ ভালো ছিল। এ জন্য বছর শেষে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এসেছে। নতুন বাজেটে প্রণোদনা দেওয়ায় রেমিট্যান্স প্রবাহ বাড়বে বলে জানান তিনি।
তথ্য পর্যালোচনায় দেখা গেছে, গত চার বছরের মধ্যে দেশে ২০১৪-১৫ অর্থবছরে সর্বোচ্চ প্রবাসী আয় এসেছে। এ সময় এসেছিল এক হাজার ৫৩১ কোটি ৬৯ লাখ ডলার। গত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে রেমিট্যান্স পাঠানোর পরিমাণ ছিল এক হাজার ২৭৬ কোটি ৯৪ লাখ ডলার। এ ছাড়া সর্বশেষ ২০১৭-১৮ অর্থবছরে এক হাজার ৪৯৮ কোটি ডলার এসেছিল, যা তার আগের অর্থবছরের চেয়ে ১৭.৩ শতাংশ বেশি।
এদিকে বৈধ পথে প্রবাসী আয় দেশে আসতে আগামী অর্থবছর থেকে নগদ প্রণোদনা দেওয়া হবে। ২ শতাংশ হারে নগদ প্রণোদনা দেওয়া হবে। এ জন্য বাজেটে অর্থ বরাদ্দ রেখেছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল। অন্তর্মুখী প্রবাসী আয়ের ওপর প্রণোদনা দিতে চলতি অর্থবছরে বাজেট থেকে তিন হাজার ৬০ কোটি টাকা বরাদ্দ দেবে সরকার। ২ শতাংশ প্রণোদনা দিলে প্রবাসীদের পাঠানো বিদেশি মুদ্রার বিপরীতে দেওয়া প্রতি ১০০ টাকায় বাড়তি দুই টাকা পাবেন স্বজনরা।
অভিবাসন সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ২০১৭ সালে রেকর্ডসংখ্যক জনশক্তি রপ্তানি হয়েছিল। মূলত এর প্রভাবে বেড়েছে প্রবাসী আয়। এর পাশাপাশি ডলারের বিপরীতে টাকা দুর্বল হওয়ায় এবং হুন্ডি প্রতিরোধে ব্যবস্থা নেওয়ায় প্রবাসী আয় বেড়েছে।সম্পাদনা:সমর চক্রবর্তী




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]