• প্রচ্ছদ » » মাহমুদা বেগম : যিনি জীবনের সব আয়, উপহার বিলিয়েছেন অকাতরে


মাহমুদা বেগম : যিনি জীবনের সব আয়, উপহার বিলিয়েছেন অকাতরে

আমাদের নতুন সময় : 04/07/2019

মুশফেকা আলম ক্যামেলিয়া

চারপাশের জগৎ বড় মায়াময়, তবে ক্ষণিকের। আত্মার কাছে গিয়ে তাই আনন্দ খোঁজ। আত্মার আনন্দ থাকে দানে, নিজেকে উজাড় করায়। কথাগুলো এক মহামানবীর। নাম তার মাহমুদা বেগম। তেজগাঁও কলেজের সমাজকর্ম বিভাগে দীর্ঘ ২৯ বছরের কর্মযজ্ঞ পেরিয়ে প্রতিটি মানুষের মনে এক স্থায়ী প্রলেপ ফেলে মানুষটির প্রস্থান। মহামানবের আখ্যান আমরা কলেবরে শুনতে পাই। কিন্তু মহামানবীরা থেকে যায় অন্তরালে। কেননা পুরুষতন্ত্র আমাদের মহিমান্বিত করতে শেখায় ক্ষমতা, প্রভাব, প্রতিপত্তিকে, এর আড়ালের কোনো দুর্বার যাত্রী তাই থেকে যায় অচেনা। খুব ছেলেবেলার এক ঘটনা দিয়ে শুরু করি। ক্লাস সেভেনের ছাত্রী তখন। বাড়িতে অনেক ভাইবোন আর উপার্জনকারী বাবা একজন সৎ চাকুরে। ফলে খাবার থেকে পোশাক আশাক সবের মাঝেই রাখতে হতো পরিমিতি। এই মেয়েটির চোখে পড়লো বাড়ির কাজের মেয়েটির কায়িক শ্রম তার থেকে বেশি। ফলে নিজের বরাদ্দ দুইটি রুটির একটি রুটি মায়ের চোখের আড়ালে নিয়ে রেখে দিতো কাজের মেয়েটির জন্য। সেই মেয়েটি গ্রামে যাবে বেড়াতে, বিদায়বেলা এই দরিদ্র মেয়েটির প্রাণকে খুশি করতে দিয়ে দিলো তার একমাত্র ঝলমলে কারুকার্যের ওড়নাটি। যা শুধু বড় কোনো অনুষ্ঠানে যাবার জন্য তোলা ছিলো। বিজয় দিবস বা জাতীয় কোনো অনুষ্ঠানে যেতো স্কুল ড্রেস পরে, কারণ সবার মতো বাড়তি পোশাকের আয়োজন ছিলো তার বাবার নাগালের বাইরে। বাবার এই হিসেবী সংসারে নিজের আনন্দকে প্রাধান্য দিতে কখনোই পারেনি। সেই মানুষ এখন অঢেল সম্পদের মালিক হবার পরও আজও তার পোশাক সীমিত, বেতনের সম্পূর্ণটা দান করতেন ক্যান্সারে আক্রান্ত এক কলিগকে, প্রতিটি কর্মচারী, যাদের কাছে থাকতো মা, তাদের জন্য তার পক্ষ থেকে বরাদ্দ থাকতো ৫০০ টাকা করে। জীবনের প্রতিটি আয়, উপহার বিলিয়েছেন অকাতরে। আমাদের কাউকে কিছুই বুঝতে না দিয়ে চাকরি জীবনের শেষদিন সবার হাতে হাতে উপহার তুলে দিয়ে নীরবে প্রস্থান করলেন এই নারী। শেষে তার আরেক পরিচয় না দিলেই নয়, এই সাদাসিধে আবরণহীন মানুষটি মেডিসিনের অন্যতম বিখ্যাত ডাক্তার ড. আবদুল্লাহর সহধর্মিণী। তাদের ভালোবাসার গল্প তোলা থাকলো পরের পর্বে। লেখক : প্রভাষক, রাষ্ট্রবিজ্ঞান বিভাগ, তেজগাঁও কলেজ, ঢাকা।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]