• প্রচ্ছদ » » রিফাত হত্যা : একটু ভিন্নভাবে দেখার চেষ্টা


রিফাত হত্যা : একটু ভিন্নভাবে দেখার চেষ্টা

আমাদের নতুন সময় : 04/07/2019

শওগাত আলী সাগর

বরগুনায় রিফাতকে প্রকাশ্য দিবালোকে কোপানো হয়েছে সকাল ১০টার দিকে। বিকেল ৩টার দিকে বরিশাল শেরে বাংলা হাসপাতালে তার মৃত্যু হয়। তার মানে হচ্ছে ঘটনাস্থলেই রিফাতের মৃত্যু হয়নি। আক্রান্ত হওয়ার পরে অন্তত ঘণ্টা পাঁচেক তিনি মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করেছেন। এই লড়াইকালে স্থানীয় হাসপাতালে তার চিকিৎসা হয়েছে। স্থানীয় চিকিৎসায় কি তার রক্তক্ষরণ বন্ধ করা গিয়েছিলো? এমন এলোপাতাড়ি কোপে যে রক্তক্ষরণ হয়, তা বন্ধ করার মতো চিকিৎসা সুবিধা কি বরগুনায় বা শেরে বাংলা হাসপাতালে আছে? না থাকলে রিফাতের মুত্যু ছাড়া আর কোনো গতিই তো ছিলো না। যদি ভিন্নভাবে বলি। ধরুন, এলোপাতাড়ি কোপ খাওয়ার পর তার শরীরে যে প্রবল রক্তক্ষরণ হচ্ছিলো তা বন্ধ করার মতো চিকিৎসা ব্যবস্থা বরগুনায় ছিলো, শেরে বাংলা হাসপাতালে ছিলো। হাসপাতালে নেয়ার স্বল্পতম সময়ের মধ্যে চিকিৎসকরা রক্তক্ষরণ বন্ধের ব্যবস্থা করে ফেলেছেন। তা হলে কি রিফাত বেঁচে যেতো? নিশ্চয়ই চিকিৎসকরা তাদের সাধ্যমতো চেষ্টা করেছেন রিফাতকে বাঁচাতে। চিকিৎসকদের ভ‚মিকা নিয়ে কোনো প্রশ্ন নেই। চিকিৎসকরা যে তাদের সক্ষমতার সবটুকু কাজে লাগাবেন… সেই সুবিধাটুকু তাদের আমরা দিতে পেরেছি কিনা… প্রশ্নটা সেখানে। রিফাতের মৃত্যুর আলোচনায় কেন যে এই ভাবনাগুলো পেয়ে বসলো? ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]