ডিআইজি মিজানের ভাগ্নে এসআই মাহমুদুল কারাগারে

আমাদের নতুন সময় : 05/07/2019

মামুন আহম্মেদ খান : অবৈধ সম্পদ অর্জন এবং মানিল্ডারিং আইনের মামলায় বরখাস্ত পুলিশের ডিআইজি মিজানুর রহমানের ভাগ্নে এসআই মাহমুদুল হাসানের জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত। গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ কেএম ইমরুল কায়েশ কারাগারে পাঠানোর এ আদেশ দেন। এসআই মাহমুদুল হাসান বর্তমানে রাজধানীর কোতয়ালী থানায় কর্মরত ছিলেন বলে জানা গেছে।
মাহমুদুল হাসান গত ১ জুলাই ডিআইজি মিজানের সঙ্গে হাইকোর্টে আগাম জামিনের আবেদন করেন। কিন্তু হাইকোর্ট তার জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে নিম্ন আদালতে আত্মসমর্পণ করতে নির্দেশ দেন। সে আদেশ অনুযায়ী বৃহস্পতিবার তিনি আদালতে আত্মসমর্পণ করে জামিনের আবেদন করেন।
আসামি পক্ষের ঢাকা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি কাজী নজিবুল্ল্যাহ হিরু বলেন, আসামি দুই বছর ধরে পুলিশের এসআই পদে চাকুরি করছেন। তার আগে তিনি ব্যবসা করতেন। চাকুরি করে তিনি কোন সম্পদ অর্জন করেন নাই। যা করেছেন চাকরিতে যোগদানের আগে ব্যবসা করে। তার ইনকাম ট্যাক্স ফাইল আছে। আর মামলার সম্পদগুলোর আসামি মিজানের। তিনিই নামে বেমানে ক্রয় করেছেন। এ সম্পর্কে এ আসামি কিছুই জনেন না।
এ সময় বিচারক প্রশ্ন করে বলেন, মামলায় অভিযোগ, এ আসামির নামে ব্যাংকে এফডিআর। যার নমিনি আসামি ডিআইজি মিজান কেন? জবাবে আইনজীবীরা বলেন, এ মামলার কোন সম্পত্তি সম্পর্কে এ আসামি কিছুনা জানেন না। তিনি ব্যাংকের কোন কাগজে স্বাক্ষরও করেননি।
এরপর দুদকের আইনজীবী মোশাররফ হোসেন কাজল বলেন, আসামির বিরুদ্ধে মামলায় মানিলন্ডারিং এর অভিযোগ। তিনি ডিআইজি মিজানকে অর্থ ও সম্পত্তি হস্তান্তর, রুপান্তরে সহায়তা করেছেন। এছাড়া এ আসামি হাইকোর্টে আত্মসমর্পণ করলে হাইকোর্ট তার জামিন নামঞ্জুর করে আদালতে আত্মসর্মণের নির্দেশ দিয়েছেন। তাই এ পর্যায়ে এ আসামিকে জামিন দেয়া সমীচিন হবে না। উভয় পক্ষের শুনানি শেষে বিচারক জামিনের আবেদন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]