আড়ালে থাকা এক স্বপ্ন নায়িকার নাম অলিভিয়া

আমাদের নতুন সময় : 06/07/2019

ইমরুল শাহেদ : ঢাকার চলচ্চিত্রের সত্তর দশকের একমাত্র আবেদনময়ী তারকা অভিনেত্রী অলিভিয়া দীর্ঘদিন থেকে সকলের চোখের আড়ালে রয়েছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকের কল্যাণে তিনি সম্প্রতি আলোচনায় চলে আসেন। ইউটিউব থেকে দি রেইনসহ তার অভিনীত বেশ কয়েকটি গান এবং বিভিন্ন ভিডিও ক্লিপিং মুক্তি দেয়া হয়েছে। তা নিয়ে আলোচনা করতে গিয়ে উঠে এসেছে দর্শক-শ্রোতাদের অন্তরে লালিত বিভিন্ন প্রতিক্রিয়া। একজন শ্রোতা লিখেছেন, তিনি সুচিত্রা সেনের মতোই সকলের চোখের আড়ালে চলে গেছেন ভালো করেছেন। তাকে আমরা চলচ্চিত্রে যেমন দেখেছি তেমন ইমেজ নিয়েই আমাদের মাঝে বেঁচে থাকুন।
অলিভিয়া অভিনীত সর্বশেষ ছবি দুশমনি মুক্তি পায় ১৯৯৫ সালে। এরপর থেকে এই অভিনেত্রী পর্দা কিংবা বাস্তবে আর কারও মুখোমুখি হননি। অনেকটা নীরবে-নিভৃতেই কাটছে তার জীবন। জানা গেছে, ধর্ম-কর্ম পালন ও সংসারধর্ম নিয়েই পরম সুখে কাটছে তার জীবন। অলিভিয়ার জন্ম ১৯৫৩ সালের ১৬ ফেব্রæয়ারি করাচিতে। তিনি ইংলিশ মিডিয়াম স্কুলে লেখাপড়া করেন। মাত্র ১৪ বছর বয়সে মডেলিং শুরু করেন। হোটেল পূর্বাণীতে রিসিপশনিস্ট পদে চাকরি করেন কিছুদিন। এরপর কাজ করেন দৈনিক অবজারভার পত্রিকায়। চাকরিরত অবস্থায় কয়েকটি বিজ্ঞাপনে কাজ করেন। ১৯৭২ সালে চিত্রনির্মাতা এস এম শফি তার ‘ছন্দ হারিয়ে গেলো’ ছবিতে প্রথম ব্রেক দেন অলিভিয়াকে। যদিও এর আগে প্রখ্যাত চলচ্চিত্রকার জহির রায়হানের ‘লেট দেয়ার বি লাইট’ এবং বেবি ইসলামের ‘সংগীতা’ চলচ্চিত্রে অভিনয় করার কথা ছিলো তার। ছন্দ হারিয়ে গেলো থেকে দুশমনি পর্যন্ত তিনি ৫০টি ছবিতে অভিনয় করেছেন। পোশাকি, ফ্যান্টাসি এবং সামাজিক সব ধরনের চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন এবং গø্যামার নায়িকা হিসেবেই বেশি প্রতিষ্ঠা পান তিনি। নায়ক ওয়াসিমের সঙ্গে তার জুটি আকাশছোঁয়া জনপ্রিয়তা পায়। ১৯৭৬ সালে মুক্তি পাওয়া এই জুটির ‘দ্য রেইন’ ছবিটি দেশে-বিদেশে ব্যাপক সাড়া জাগায়।
ববিতা বলেন, আমার সঙ্গে প্রায় দেখা হয় তার। এখনো আগের মতোই হাসিখুশি আছে ও। স্বামী-সংসার নিয়ে সুখেই কাটছে তার জীবন। অভিনেত্রী হিসেবে যেমন বাস্তবেও অসাধারণ ভালো মনের মেয়ে অলিভিয়া।
প্রথম স্বামী চিত্রপরিচালক এস এম শফির মৃত্যুর পর চলচ্চিত্র ত্যাগ করেন অলিভিয়া। এরপর বিয়ে করেন ফতুল্লার মুনলাইট টেক্সটাইল মিলের কর্ণধার হাসানকে। বসবাস করছেন বনানীর ডিওএসএইচ-এর বাড়িতে। এস এম শফির সঙ্গে তার বিয়ে হয়েছিলো ১৯৭২ সালে।
ববিতার পর অলিভিয়া ছিলেন একমাত্র নায়িকা যিনি তখন কলকাতার ছবিতে অভিনয় করার সৌভাগ্য অর্জন করেন। ছবির নাম ‘বহ্নিশিখা’। এ ছবির নায়ক ছিলেন উত্তম কুমার।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]