• প্রচ্ছদ » » ড. এম এ মোমেন বললেন, এরশাদ হুট করে ক্ষমতা দখল করেননি, অনেকটা ঘোষণা দিয়ে বাদ্য বাজিয়েই এসেছেন


ড. এম এ মোমেন বললেন, এরশাদ হুট করে ক্ষমতা দখল করেননি, অনেকটা ঘোষণা দিয়ে বাদ্য বাজিয়েই এসেছেন

আমাদের নতুন সময় : 06/07/2019

আমিরুল ইসলাম : সাবেক সরকারি কর্মকর্তা, লেখক ও কলামিস্ট ড. এম এ মোমেন বলেছেন, প্রেসিডেন্ট এরশাদ হুট করে ক্ষমতা দখল করেননি। অনেকটা ঘোষণা দিয়ে বাদ্য বাজিয়েই এসেছেন। আমাদের রাজনৈতিক দেউলিয়াপনাকে কাজে লাগিয়ে দল গঠন করেছেন, নির্বাচন করেছেন, বিজয়ী হয়েছেন, দীর্ঘ সময় ক্ষমতাও ধরে রেখেছেন।
তিনি বলেন, প্রেসিডেন্ট এরশাদের ভজনা করা যেসব শিল্পী-সাহিত্যিক-বুদ্ধিজীবী-রাজনীতিবিদ তার কাছ থেকে বহুমূল্যের প্লটসহ খেতাব এবং অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা আদায় করে নিয়েছিলেন, নব্বইয়ে তার পতনের পর প্রায় সবাই চেহারা পাল্টে ফেললেন, ‘স্বৈরাচারী এরশাদ’ বলে শোর তুললেন। আমি আমার বেতনের অতিরিক্ত কিছু পাইনি, কখনো চাইওনি। সাবেক প্রেসিডেন্টকে নিয়ে রাজনীতিবিদরা যতো গালমন্দ ও বিতর্ক করুন, যেহেতু আমার সরকারি চাকরি জীবনের প্রথম যুগের আটটি বছর তারই আমল, আমি কিঞ্চিৎ হলেও তখনকার বাংলাদেশের মহামান্য প্রেসিডেন্টের স্নেহস্পর্শ পেয়েছি। তার কাছ থেকে যারা অনুগ্রহ পেয়েছেন, তারা রং বদলে নিয়েছেন। সূত্র : জাতীয় পার্টি ফেসবুক পেজ
সরকারি চাকরিতে থাকলেও যেদিন আমার স্কুল জীবনের ক্লাসমেট ডাক্তার শামসুল আলম মিলন নিহত হলে আমিও একান্তভাবে তার এবং তার সরকারের পতন চেয়েছি। সরকারি চাকরিতে না থাকলে হয়তো আমিও মিছিলের একজনই হতাম। আবার গত শতকের নব্বইয়ের দশকের দ্বিতীয় বা তৃতীয় বছর থেকে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির যে সূর্যরশ্মিটি দেখা দেয়, আমার বিবেচনা শক্তি স্পষ্টভাবে বলে দেয় এর কৃতিত্ব যদি দিতে হয় তা এরশাদেরই প্রাপ্য হবে… বিশেষ করে তার সময়ের অবকাঠামোগত উন্নয়ন।
তিনি আরো বলেন, ১৯৯০-এর ডিসেম্বরে তার ডুবন্ত তরী থেকে তার প্রিয়ভাজনরা কেমন করে লাফিয়ে পড়ে নিরাপদ আশ্রয়ে চলে গেছেন সে দৃশ্য অনেকেরই দেখা। অখÐ পাকিস্তানের প্রতাপশালী শাসক ফিল্ড মার্শাল আইয়ুব খানের ডায়েরি এবং কিছু সহযোগী গ্রন্থ পাঠ করে এমনই আমার মনে হয়েছে ১৯৬৯-এর ২৫ মার্চের আংশিক পুনরাবৃত্তি ঘটেছে তার পতনের দিন। এ নিয়ে আগামী দিনের গবেষকরা লিখবেন। ব্যক্তিগত কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করতে গিয়ে আমার কিছু কিছু ভালো না লাগার কথাও বললাম। ডাক্তার মিলন কিংবা অন্য কাউকে তিনি নিজে গুলি করেননি, কিংবা গুলি করার আদেশও অন্তত প্রেসিডেন্টের দেয়ার কথা নয়। পুরো ব্যাপারটি ঘটেছে একটি সরকারের বৃহত্তর ব্যর্থতা থেকে, যে দায় এড়ানোর সুযোগ নেই। এ সময় তার দীর্ঘায়ু কামনা প্রসহনের মতো শোনাবে, আমি যেটুকু কৃতজ্ঞ সেই কৃতজ্ঞতাবোধ থেকে আমার চাওয়া সহি-সালামতে তার জীবনের অবসান ঘটুক। আর অনেক বছর পর নৈর্ব্যক্তিক কোনো ইতিহাস প্রণেতার হাতে তার মূল্যায়ন হোক।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]