• প্রচ্ছদ » আমাদের বিশ্ব » পররাষ্ট্রমন্ত্রী থাকাকালে বরিসকে অবিশ্বাস করতেন থেরেসা, বিষয়টি না জানাতে গুপ্তচর প্রধানকে অনুরোধ


পররাষ্ট্রমন্ত্রী থাকাকালে বরিসকে অবিশ্বাস করতেন থেরেসা, বিষয়টি না জানাতে গুপ্তচর প্রধানকে অনুরোধ

আমাদের নতুন সময় : 06/07/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : বরিস জনসন পররাষ্ট্রমন্ত্রী থাকাকালে বর্তমান প্রধানমন্ত্রী থেরেসা মে তাকে বিশ^াস করতেন না। তবে তিনি যুক্তরাজ্যের গোয়েন্দা প্রধানকে অনুরোধ করেছেন, যেনো বরিস জনসন প্রধানমন্ত্রী হলে তাকে এই বিষয়টি জানানো না হয়। ব্রিটিশ ট্যাবলয়েড ডেইলি মেইল এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে। তবে থেরেসা মে অবিশ^াস করে কোনো ধরণের গোয়েন্দা তথ্য জানাননি এই বিষয়টি অস্বীকার করেছেন বরিস জনসন। ডেইলি মেইল।
২০১৬ পর্যন্ত থেরেসার মন্ত্রিসভার সদস্য ছিলেন লন্ডনের সাবেক মেয়র বরিস জনসন। ডেইলি মেইল জানিয়েছিলো, এসময় থেরেসা বরিসকে কোনো গুরুত্বপূর্ণ তথ্যই দিতেন না। তবে এই বিষয়টি নিয়ে দ্বিধায় ছিলো ব্রিটিশ গুপ্তচর সংস্থা এমআই ৬। কারণ সংবেদনশীল অনেক অভিযানের বিষয়ে বরিস জনসনের কাছ থেকে অনুমতি প্রয়োজন হতো। এই বিষয়ে বরিস বলেন, ‘আমি মনে করি না প্রধানমন্ত্রী ইন্টেলিজেন্সের বিষয়ে কারো সঙ্গে আলোচনা করবেন। কারণ এগুলো খুবই সংবেদনশীল বিষয়। এটি সত্যি হতেই পারে না।’
এই ব্যাপারে কোন মন্তব্য করতে রাজি হয়নি ডাউনিং স্ট্রিট। এই বিষয়ে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরের মুখপাত্র বলেন, ‘ডাউনিং স্ট্রিট কখনই ইন্টেলিজেন্স এর বিষয়ে মন্তব্য করেনা।’ সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]