• প্রচ্ছদ » » ‘যারা হরতাল ডেকেছে, তারা অশুভ ও অগণতান্ত্রিক শক্তিÑশাসক দল’


‘যারা হরতাল ডেকেছে, তারা অশুভ ও অগণতান্ত্রিক শক্তিÑশাসক দল’

আমাদের নতুন সময় : 06/07/2019

মঞ্জুরে খোদা টরিক

অশুভ-অগণতান্ত্রিক শক্তির ডাকা হরতালে সংহতি প্রকাশ করছি, সমর্থন করছি, আপনাকেও করতে হবে! কেন করবেন? দুনিয়াতে জিনিসপত্রের দাম বাড়ার একটা স্বীকৃত কারণ ও ব্যকরণ আছে! যেমন উৎপাদন খরচ, সরবরাহ, চাহিদা, জোগান ইত্যাদির তারতম্য! কিন্তু বাংলাদেশে দাম বৃদ্ধির জন্য এসব তত্তে¡র দরকার নেই। এর কোনো কিছুর দরকার হয় না… তাহলে দাম বাড়লো কেন? বাংলাদেশে মূল্যবৃদ্ধির প্রধান কারণ চুরি, দুর্নীতি, অব্যবস্থাপনা ও শাসকদের লুটপাট প্রকল্পের অর্থের জোগান দিতে। যা বিশ্বের স্বীকৃত ধনবিজ্ঞানের বাইরের হিসেবে। সরকার কি এসব জুলুম-অনিয়ম বন্ধ করবে…? করবে না… তাহলে তাদের দায়িত্ব কি? বর্তমান শাসক তা করতে অপরাগ… কারণ তারা হচ্ছে লুটেরাদের সহযোগী ও অংশীদার। তাদের স্বার্থ রক্ষা করতেই বেনিয়ারা রাজনীতিকদের তাদের প্রতিনিধি হিসেবে সংসদে পাঠায়। পরিণাম সরকারকে ব্যবহার করে, তাদের ক্ষমতা খাটিয়ে জনগণের কাছ থেকে তাদের বিনিয়োগকৃত অর্থ আদায় করে নেয়া। এটা করলে জনগণের উপর চাপ হয় সরকার কি বোঝে না? বোঝে। তাতে তাদের জনপ্রিয়তা কমবে তাও জানে? তাহলে তারা এই অন্যায়-অপকর্ম করছে কেন? কারণ তাঁবেদার সরকারের জনগণের সমর্থন দরকার নেই। তারা ভোট বা জনসমর্থনের তোয়াক্কা করে না। অনেক আগেই তারা জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন ও প্রত্যাখ্যাত। সুতরাং রাতের অন্ধকারে যারা তাদের ভোট ডাকাতি করে ক্ষমতায় এনেছে তাদের প্রতি অনুগত থাকা ও তাদের স্বার্থ রক্ষা করাই তাদের প্রধান কর্তব্য এবং সরকারের দায়িত্ব… জনগণের পকেট কেটে তাদের বাণিজ্যের সুবিধা করে দেয়ার গোপন সন্ধির প্রতিশ্রæতি পালন করা। সেটা করতে তারা গুÐাতন্ত্র, কর্তৃত্বমূলক শাসন ও ভয়ের সংস্কৃতির মাধ্যমে মানুষের ঘুরে দাঁড়ানোর ক্ষমতা, প্রতিবাদ করার ক্ষমতা কেড়ে নেয় ও ক্ষতিগ্রস্ত করে… কিন্তু এটা কি শেষ কথা? না… এখনো কিছু বা অনেক মানুষ আছে না বলার… এরাই ¯্রােতের বিপরীতে চলা দেশের বাম-গণতান্ত্রিক শক্তি। এরাই আপনার ভাষায় ‘ঢাল, তলোয়ারহীন নিধিরাম…’ এরাই দুঃশাসনের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করা শক্তি। কোনো কিছুকেই প্রতিবাদহীন ও বিনা চ্যালেঞ্জে না ছেড়ে দেয়া শক্তি। এরাই গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ৭ জুলাই সারাদেশে অর্ধবেলা হরতাল ডেকেছে। দেশপ্রেমিক বামশক্তির এই হরতালকে সমর্থন করছি, আপনাকেও সমর্থন করতে হবে এবং হরতাল পালন করতে হবে। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]