• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » ৩ লাখ কোটি ডলারের অর্থনীতির দেশ হওয়ার লক্ষ্যে ভারতের নতুন বাজেট ঘোষণা


৩ লাখ কোটি ডলারের অর্থনীতির দেশ হওয়ার লক্ষ্যে ভারতের নতুন বাজেট ঘোষণা

আমাদের নতুন সময় : 06/07/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : ৩ লাখ কোটি ডলারের অর্থনীতির দেশ হতে চায় ভারত। এই বিষয়টি ঘোষণা করে প্রথম নারী অর্থমন্ত্রী হিসেবে লোকসভায় বাজেট পেশ করেছেন নির্মলা সিতারমন। নতুন বাজেটে মধ্যবিত্তদের কর রেয়াতের প্রতিশ্রুতি থাকলেও তা দেওয়া হয়নি। নতুন করে পেট্রোল-ডিজেল-কেরোসিনের উপর করারোপ করা হয়েছে। ফলে বাড়বে জ¦ালানী তেলের দর। বাড়বে সোনাসহ অন্যান্য মুল্যবান ধাতুর দরও। এমনকি বিদেশী বই এর উপরেও কর বসানো হচ্ছে। সীতারমন এই বাজেটকে কৃষক ও গরীববান্ধব বাজেট বলে ঘোষণা করেছেন। এনডিটিভি, ইয়ন নিউজ, আনন্দবাজার।
বাজেট পেশের সময় সিতারামন বলেন চলতি বছরেই ৩ লাখ কোটি ডলার অর্থনীতির দেশ হয়ে যাবে ভারত। তিনি বলেন, ‘বর্তমানে ভারত বিশ্বের ৬ষ্ঠ বৃহত্তম অর্থনীতির দেশ। ৫ বছর আগে ভারত ছিল একাদশতম স্থানে,আমাদের প্রচুর পরিমাণে বিনিয়োগ বৃদ্ধি করা প্রয়োজন ডিজিটাল অর্থনীতি ও কর্মসংস্থানে’। তিনি বলেন, ৫ট্রিলিয়ন ডলার অর্থনীতির দেশে পৌঁছাতে আরও কয়েক বছর লাগবে ভারতের। পাবলিক শেয়ারহোল্ডিং ২৫ শতাংশ থেকে ৩৫ শতাংশে করার এটাই সঠিক সময় বলেও মন্তব্য করেন তিনি।
মোদী ২০১৪-২৫ এর মধ্যেই ভারতকে ৫ট্রিলিয়ন ডলার অর্থনীতির দেশ হিসাবে তুলে ধরার লক্ষ্যমাত্রা নিয়েছেন। অর্থনৈতিক বিশেষজ্ঞদের মতে, চীনের মতো উচ্চমাত্রায় বিনিয়োগ করলে ও অর্থ সঞ্চয়ে নজর দিলে লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছনো যাবে। সীতারামন আশা প্রকাশ করে বলেছেন যে চলতি বছরেই ৩ট্রিলিয়ন ডলার অর্থনীতির দেশে পৌঁছে যাবে ভারত। এবারের বাজেটে সেই নিম্নবিত্ত বা মধ্যবিত্তের জন্য কোনো আয়কর সংক্রান্ত ঘোষণা নেই। লোকসভা ভোটের আগে অন্তর্বর্তিকালীন বাজেটে পীযষ গোয়াল এমন ব্যবস্থা করেছিলেন, যাতে পাঁচ লাখ রুপি আয় হলে কোনো কর দিতে হতো না। আয়করের ক্ষেত্রে সেই ঊর্ধ্বসীমাই বজায় রাখলেন নির্মলা। শুধুমাত্র উচ্চবিত্তদের ক্ষেত্রে আয়করের উপর সারচার্জ কিছুটা বেড়েছে।
পেট্রোল-ডিজেলের উপর লিটারপ্রতি এক রুপি কর চাপিয়েছেন সিতারামন। আন্তর্জাতিক বাজারে অপরিশোধিত তেলের দাম পড়তির দিকে। অর্থনৈতিক সমীক্ষায় আরো কমার ইঙ্গিত রয়েছে। মধ্যবিত্তের জন্যে একমাত্র গৃহঋণের ক্ষেত্রে কিছুটা স্বস্তি দিয়েছেন নির্মলা। গৃহঋণের সুদে অতিরিক্ত দেড় লক্ষ রুপি আয়কর ছাড়ের প্রস্তাব রয়েছে বাজেটে। অর্থাৎ ২০২০ সালের ৩১ মার্চ পর্যন্ত ৪৫ লাখ রুপি মূল্যের বাড়ি কেনার জন্য ঋণ নিলে তার সুদের উপর দেড় লাখ রুপি পর্যন্ত কর ছাড় মিলবে। যার সুবিধা পাবেন খুব সামান্য মানুষই।
নির্মলা এদিন জানিয়েছেন, বাজেটের লক্ষ্যে ‘গাঁও গরিব কিসান’। কৃষিভিত্তিক শিল্প গড়ে তোলা, কৃষি পণ্য পরিবহণের কথা বলা হলেও তার নির্দিষ্ট কোনও নির্দেশনা নেই। বলা হয়েছে বেসরকারি বিনিয়োগের কথা। ভোটের আগের বাজেটে ঘোষণা হয়েছিল দরিদ্র কৃষকদের মাসে ৬০০ রুপি অনুদান। এ দিন সেই প্রকল্পের কথা ফের উল্লেখ করলেও অনুদানের পরিমাণ বা নতুন কোনো প্রকল্পের ঘোষণা নেই কৃষিক্ষেত্রে। সরকারি নয়, বেসরকারি বিনিয়োগ বাড়িয়ে কৃষির উন্নয়নের চেষ্টা করা হবে, আশ্বাস দিয়েছেন নির্মলা। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]