• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » শাহরিয়ার কবির বললেন, মাদ্রাসা শিক্ষক বা ধর্মীয় নেতা, যেই ধর্ষক হোক তাকে শাস্তি দিতে হবে


শাহরিয়ার কবির বললেন, মাদ্রাসা শিক্ষক বা ধর্মীয় নেতা, যেই ধর্ষক হোক তাকে শাস্তি দিতে হবে

আমাদের নতুন সময় : 07/07/2019

আমিরুল ইসলাম : ফেনীর সোনাগাজীর মাদ্রাসা অধ্যক্ষ সিরাজউদৌল্লার পর এবার নারায়ণগঞ্জের মাহমুদপুরের মাদ্রাসা অধ্যক্ষ আলামিনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগের মাধ্যমে ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের ধর্ষণের ও যৌন নির্যাতনের স্পষ্ট চিত্র ফুটে উঠে। এটা কি আগে থেকেই ছিলো, না হঠাৎ করে এমনটা হচ্ছে? ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে সরকারের আওতায় আনার প্রক্রিয়া চলছে। ঘৃণ্য সব অভিযোগের পটভ’মিতে ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে সরকারের আওতায় আনা ঠিক হবে কিনা জানতে চাইলে ঘাতক দালাল নির্মূল কমিটির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শাহরিয়ার কবির বলেছেন, ধর্মীয় শিক্ষকদের মধ্যে ধর্ষণের প্রবণতা সবসময় ছিলো। ওয়াজের নামে নারীদের সম্পর্কে অশ্লীল কথাবার্তা বলা হয়। মাদ্রাসাগুলোতেও এগুলো শেখানো হয় ছাত্রদের। হেফাজতে ইসলামের আল্লামা শাহ আহমদ শফীর বক্তব্যেও নারীদের সম্পর্কে যেসব কথা হয়েছে সেসব কথা এখন সবাই জানে। এই ধরনের বক্তব্য শুনেই মাদ্রাসা শিক্ষকরা প্রলুব্ধ হচ্ছে। তারা নারীদের ভোগের সামগ্রী মনে করছে। মাদ্রাসা শিক্ষার গোড়াতেই গলদ আছে। সেজন্য আমরা সবসময় বলছি মাদ্রাসা শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোকে যুগোপযোগী করতে হবে, সরকারের নিয়ন্ত্রণে আনতে হবে। অপরাধীদের কঠোর শাস্তির আওতায় আনতে হবে। তবেই এগুলো কমবে। কিন্তু অপরাধীরা শাস্তি পাচ্ছে না আমাদের সমাজে। মাদ্রাসা শিক্ষক বা ধর্মীও নেতা,যেই ধর্ষক হোক তাকে শাস্তি দিতে হবে। ধর্ষণের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তিটা আমাদের চোখের সামনে হচ্ছে না। হচ্ছে না বলেই ধর্ষণ, যৌন নির্যাতন ও নারীর প্রতি সহিংসতা বাড়ছে। ধর্মের নামে নারীদের প্রতি অবমাননাকর উক্তি সেটা ওয়াজে, জুমার নামাজের খুতবাতে ও মাদ্রাসা শিক্ষার কারিকুলামেসহ যেখানই হোক সেটা বন্ধ করতে হবে। সংবিধানের বাইরে কিছু বলা যাবে না। সংবিধান নারী-পুরুষ নির্বিশেষে সব মানুষের সমান অধিকার ও মর্যাদা নিশ্চিত করেছে। এই জায়গাটা নিশ্চিত করতে হবে। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]