• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » ভারতের জয়পুর ও মিয়ানমারে মন্দিরের শহর বাগান ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকাভুক্ত


ভারতের জয়পুর ও মিয়ানমারে মন্দিরের শহর বাগান ইউনেস্কোর বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকাভুক্ত

আমাদের নতুন সময় : 08/07/2019

সুস্মিতা সিকদার : ভারতের রাজস্থানের পিঙ্ক সিটি বা গোলাপী নগর খ্যাত ‘জয়পুর’কে ইউনেস্কো শনিবার বিশ্ব ঐহিত্যের তালিকাভুক্ত করেছে। দেশটির রাজনৈতিক নেতারা ঐতিহাসিক এই শহরকে বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকায় স্থান দেয়ায় স্বাগত জানিয়েছেন। ইউনেস্কো টুইটবার্তায় খবরটি নিশ্চিত করেছে। একই দিনে ইউনেস্কো মিয়ানমারের মন্দিরের শহর বাগানকেও বিশ্ব ঐতিহ্যের স্বীকৃতি দিয়েছে। ইয়ন, গাল্ফ নিউজ ইÐিয়া।
ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী টুইটবার্তায় জানান, সংস্কৃতি আর ঐতিহ্যে ভরপুর জয়পুর শহর। এখানকার সুন্দর আতিথেয়তা গোটা বিশ্বের মানুষকে টানে। ইউনেস্কো এই শহরকে বিশ্ব ঐতিহ্য হিসেবে চিহ্নিত করায় খুবই আনন্দ অনুভব করছি। রাজস্থানের মুখ্যমন্ত্রী বলেন, এটা অত্যন্ত গৌরবের ব্যাপার। গোলাপী শহর জয়পুর রাজস্থানের গৌরব।
পশ্চিম ভারতের মরুরাজ্যের রাজধানী এই গোলাপী শহর জয়পুরের পরতে পরতে রয়েছে ইতিহাস ও সংস্কৃতির মেলবন্ধন। গোলাপী শহর জুড়ে রয়েছে একের পর স্থাপত্য। কান পাতলে আজও যেন শুনতে পাওয়া যায় ঘুঙুরের আওয়াজ, চোখ বুজলে এখনও উপলব্ধি করা যায় ঝালরের আলো, চোখ ধাধানো সব কারুকার্যে ফুটে ওঠে ইতিহাসের চোখরাঙানী।
মিয়ানমারের বেগান শহরে ছড়িয়ে রয়েছে সাড়ে তিন হাজারেরও বেশি বৌদ্ধস্তুপ, মন্দির, মঠ এবং অন্যান্য স্থাপনা। এগুলো নির্মিত হয়েছিলো ১১ খ্রিষ্টাব্দ থেকে ১৩ খ্রিষ্টাব্দে। বেগান শহরটি পর্যটন শিল্পের জন্য আশীর্বাদ স্বরূপ। ২০১৬ সালে ৬.৮ মাত্রার ভূমিকম্পে প্রায় ২০০ মন্দির ধ্বংস হয়ে যায়।
মিয়ানমারের কুটনীতিক কিয়াও জিয়া বলেন, বাগানকে বিশ্ব ঐতিহ্যের তালিকাভুক্ত করায় আমরা খুবই উচ্ছসিত। আমরা এর সংরক্ষণ ও ব্যবস্থাপনায় সচেষ্ট থাকবো যাতে ঐতিহাসিক এই ঐতিহ্য আরো হাজার বছর টিকে থাকে। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]