• প্রচ্ছদ » প্রথম পাতা » কাদের সিদ্দিকী সুবিধা নিতে ফ্রন্টে এসেছিলেন না পেয়ে চলে গেছেন, বললেন ঐক্যফ্রন্ট নেতারা


কাদের সিদ্দিকী সুবিধা নিতে ফ্রন্টে এসেছিলেন না পেয়ে চলে গেছেন, বললেন ঐক্যফ্রন্ট নেতারা

আমাদের নতুন সময় : 09/07/2019

শাহানুজজামান টিটু ও শিমুল মাহমুদ : বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আহমদ আযম বলেন, কাদের সিদ্দিকী দল নামকাওয়াস্তে একটা রাজনৈতিক দল। তিনি অনেক পরেই ঐক্যফ্রন্টে যোগ দেন। লাভবান হননি তাই ফিরে গেছেন। আমি মনে করি ঐক্যফ্রন্ট অস্তিত্ব সংকটে। এর কার্যক্রম এখন অকার্যকর। কাদের সিদ্দিকী ঐক্যফ্রন্ট এসেছিলেন সুবিধা নিতে এখন দেখেছেন এখানে সুবিধা নেই তাই তিনি চলে গেছেন।

নাগরিক ঐক্যের আহবায়ক মাহমুদুর রহমান মান্না বলেন, ৬ মাস ধরে তো ঐক্যফ্রন্ট একেবারে নিষ্ক্রিয় এর সকল কার্যক্রম বন্ধ হয়ে আছে। নিস্ক্রিয় থাকার তো কোনো মানে নাই। এখন এটা সক্রিয় করতে হলে নিজেদের মধ্যে আলোচনা দরকার এবং নিজেদের মধ্যে যে ভুল বুঝাবুঝির ব্যাপার গুলো ঘটছে এ গুলোরও নিষ্পত্তি হওয়ার দরকার।

তিনি বলেন, ঐক্যফ্রন্টের ভবিষ্যত কাদের সিদ্দিকীর চলে যাওযার উপর নির্ভর করে না। তিনি মনে করেছেন এখানে থেকে কোনো কাজ হবে না , চলে গেছেন। আর যেতেই পারেন। তবে তার চলে যাওয়ার পেছনে যে সকল কারণ গুলো রয়েছে সে গুলোর নিষ্পত্তি হয়ার প্রয়োজন। যাত্রাপথেই যদি ভুল বুঝাবুঝি থাকে এখানে এগোনো যায় না। থাকলেও সেটা আলোচনার মাধ্যমে নিষ্পত্তি হওয়া দরকার।

জেএসডির সহ-সভাপতি  তানিয়া রব বলেন, জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট গঠন করা হয়েছিল তখন কাদের সিদ্দিকী সাহেব ছিলেন না। উনি পরে এসেছেন। যখন তিনি সুবিধা মনে করেছেন তখন তিনি এসেছিলেন। এখন উনি সুবিধা মনে করছেন না এ কারণে চলে গেছেন। ঐক্যফ্রন্টের বাহিরে গিয়ে তিনি নিজেও বড় কিছু করতে পারবেন তেমন কোনো সম্ভাবনাও আমরা দেখি না। তবে আমরা যেটা চেয়েছি যে আমরা সবাই মিলে একত্রে থেকে একটা বড় কিছু করা যায় কিনা। তার ঐক্যফ্রন্ট ছেড়ে যাওয়াতে ফ্রন্টের কোন সমস্যা হবে বলে আমি মনে করি না।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]