• প্রচ্ছদ » সাবলিড » নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যা মামলায় ছোটভাইর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ


নুসরাতকে পুড়িয়ে হত্যা মামলায় ছোটভাইর সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ

আমাদের নতুন সময় : 09/07/2019

এমরান পাটোয়ারী : নুসরাত জাহান রাফিকে আগুনে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় ৮ম দিনের সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা শেষ হয়েছে। গতকাল সোমবার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদের আদালতে নুসরাতের ছোট ভাই রাশেদুল হাসান রায়হান সাক্ষ্য উপস্থাপন করলে আসামি পক্ষের আইনজীবীরা তাকে জেরা করেন। একপর্যায় সোমবারের কর্মদিবস শেষ হয়ে যাওয়ায় পূর্ব নির্ধারিত সোনাগাজী বাজারের ফার্মেসী দোকানদার জহিরুল ইসলামের সাক্ষ্য গ্রহণ করতে পারেনি। আজ মঙ্গলবার জহিরুল ইসলামসহ হল পরিদর্শক মো. বেলায়েত হোসেনের সাক্ষ্য গ্রহণের দিন ধার্য করেছে আদালত। সরকারি ছুটি ছাড়া প্রতিদিনই এ মামলার সাক্ষি কার্যক্রম চলছে। এ নিয়ে হত্যা মামলার ৯ জন সাক্ষির সাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হয়েছে। মামলার বাদী পক্ষের আইনজীবী এম. শাহজাহান সাজু বলেন, এ পর্যন্ত ৯ জনের সাক্ষ্য ও জেরা শেষ হয়েছে। আজ নুসরাতের ছোট ভাই রাশেদুল হাসান রায়হান আদালতে সাক্ষ্য উপস্থাপন করেছেন। আসামি পক্ষের আইনজীবীরা তাকে জেরা করেছেন। তিনি আদালতে ২৭ মার্চ অধ্যক্ষ সিরাজের যৌন হয়রানী ও ৬ এপ্রিলের ঘটনা বর্ণনা করেছেন। আগামীকাল সোনাগাজী বাজারের ফার্মেসী দোকানদার জহিরুল ইসলাম এবং ৬ এপ্রিল সোনাগাজী মাদ্রাসায় পরীক্ষার হল পরিদর্শকের দায়িত্বে থাকা মো. বেলায়েত হোসেনের সাক্ষ্যগ্রহণের দিন ধার্য করেছে আদালত। এর আগে গত ২৭ জুন মামলার বাদী ও প্রথম সাক্ষী নুসরাতের বড় ভাই মাহমুদুল হাসান নোমানের সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু হয়। পরে রাফির বান্ধবী নিশাত সুলতানা ও সহপাঠি নাসরিন সুলতানা, মাদ্রাসার পিয়ন নুরুল আমিন নৈশ প্রহরী মো. মোস্তফা, কেরোসিন বিক্রেতা লোকমান হোসেন লিটন, বোরকা দোকানদার জসিম উদ্দিন ও দোকানের কর্মচারী হেলাল উদ্দিন ফরহাদের সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা শেষ হয়। সম্পাদনা : ওমর ফারুক

 

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]