• প্রচ্ছদ » সাবলিড » মালেকা বানু বললেন, ধর্ষণ প্রতিরোধের অংশ হিসেবে শিক্ষা কারিকুলামে নৈতিকতা ও মানবতা অন্তর্ভুক্ত করতে হবে


মালেকা বানু বললেন, ধর্ষণ প্রতিরোধের অংশ হিসেবে শিক্ষা কারিকুলামে নৈতিকতা ও মানবতা অন্তর্ভুক্ত করতে হবে

আমাদের নতুন সময় : 09/07/2019

জুয়েল খান : মহিলা পরিষদের সাধারণ সম্পাদক ডা. মালেকা বানু বলেছেন, নারী নির্যাতন এবং ধর্ষণ মামলায় দ্রুত বিচারের ব্যবস্থা করে অপরাধীর শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। তবে বিচারের শাস্তি অবশ্যই দৃষ্টান্তমূলক এবং কঠোর হতে হবে, যা দেখে কোনো অপরাধী এমন জঘন্য অপরাধ করার সাহস না পায়।

তিনি আরও বলেন, দেশে এখন সবচেয়ে আলোচিত বিষয় হচ্ছে, বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের শিক্ষক দ্বারা শিক্ষার্থীদের যৌন নির্যাতন এবং ধর্ষণ। বিশেষ করে ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের দ্বারা এমন আচরণে সাধারণ মানুষ খুবই হতাশ। ধর্মীয় শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা তাদের শিক্ষার্থীদের ধর্মীয় মূল্যবোধের শিক্ষা দেন, তাই তাদের কাছে মানুষ তাদের সন্তানকে সবচেয়ে নিরাপদ মনে করে এবং শিক্ষকদের সবাই আস্থার চোখে দেখে। কিন্তু সেই শিক্ষক যদি তাদের শিক্ষার্থীদের ওপড়ে এমন আচরণ করেন তাহলে বিষয়টা খুবই চিন্তার। তবে খুব সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন জায়গায় শিশু ধর্ষণের ঘটনা ঘটেছে এবং তাদেরকে মেরে ফেলা হচ্ছে। এখন প্রশ্ন হচ্ছে, আমাদের এই সভ্য সমাজে যদি শিশুরাও নিরাপদ না থাকে তাহলে শিশুরা কোথায় নিরাপদ থাকবে? কোনো শিশুকে সারাদিন ঘরের ভেতরে রাখা যাবে না। শিক্ষাগ্রহণের জন্য হলেও তাদের ঘরের বাইরে বেরুতে হবে। মালেকা বানু বলেন, ধর্ষণ নামক সামাজিক ব্যাধি থেকে আমাদের সন্তানদের নিরাপদ রাখতে হলে এখন থেকেই ধর্ষণ রোধে কিছু সামগ্রিক উদ্যোগ গ্রহণ করতে হবে। যেমন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর শিক্ষা কারিকুলামে নৈতিক এবং মানবিক শিক্ষার বিষয়টি অন্তর্ভুক্ত করতে হবে।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]