• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » ধর্ষকের প্রকাশ্যে মৃত্যুদন্ডের দাবিতে রাজধানীতে মানববন্ধন


ধর্ষকের প্রকাশ্যে মৃত্যুদন্ডের দাবিতে রাজধানীতে মানববন্ধন

আমাদের নতুন সময় : 10/07/2019

আসিফ হাসান কাজল: ধর্ষকের প্রকাশ্যে মৃত্যুদন্ডের দাবিতে ঢাবির রাজু ভাস্কর্যের সামনে মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সকাল ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সাধারণ ছাত্রছাত্রী ও সচেতন নাগরিক সমাজের যৌথ আয়োজনে শতশত মানুষ এ মানবন্ধনে অংশ নেন। তাদের হাতে ব্যানার ফেস্টুনে বিভিন্ন স্লোাগান দেখা যায়। যার মধ্যে উল্লেখযোগ্য ‘আমার শিশুকন্যার ফ্রকে ধর্ষণের রক্ত কেন!’ ‘ধর্ষকের উল্লাস ধর্ষিতার কান্না মেনে নেব আর না’ ‘নারীদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা এখন সময়ের দাবি’ ‘শাস্তির মাধ্যমে ধর্ষকের সংশোধন নয়, বিনাশ চাই’।

মানববন্ধনে অংশগ্রহণকারী শামসুন্নাহার হল ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জিয়াসমিন শান্তা বলেন, আজ ছোট্ট শিশুরাও ধর্ষণের হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না। শুধু তাই নয় তাদেরকে ধর্ষণের পর হত্যাও করা হচ্ছে। এটা কখনো মেনে  নেয়া যায়না। বিশেষ ট্রাইব্যুনালে ৩০ দিনের মধ্যে ধর্ষকের বিচার প্রক্রিয়া সম্পন্ন করার তিনি দাবি জানান। “পরবর্তী ধর্ষিতা আমি হবার আগে আমার সুরক্ষা রাষ্ট্রকে বুঝিয়ে দিতে হবে এমন কথার জবাবে সাবেক ছাত্রলীগ নেতা জয়দেব নন্দী বলেন, আগে নারীদেরকে সামাজিকভাবে ঘরের মধ্যে অবরুদ্ধ করে রাখা হতো। এখন তারা ঘর থেকে বেরিয়ে এসে মুখ খুলছে, অন্যায়ের প্রতিবাদ করছে।” জয়দেব নন্দী আরো বলেন, আমাদের প্রধানমন্ত্রী ধর্ষণের ব্যাপারে কঠোর অবস্থানে রয়েছেন। আইনশৃঙ্খলা বাহিনীসহ সকল নাগরিককে সামাজিকভাবে একাতœ হয়ে ধর্ষণ প্রতিরোধের আহ্বান জানান তিনি।

পরিবেশ বিজ্ঞানী ড. কানিজ আকলিমা সুলতানা বলেন, একটা পরিবারে কেউ যদি ধর্ষিত হয় সেই পরিবার আর কখনো সমাজে মাথা উঁচু করে দাঁড়াতে পারে না। আমরা ভাবতেও পারি না ধর্ষণের পর সেই পরিবারের কি অবস্থা হয়! এ কারণে ১৯৭১ সালে পাকিস্তানিরা আমাদের মা বোনদের ধর্ষণ করেছিল। তিনি ধর্ষণ প্রতিরোধে ও সচেতনতা বৃদ্ধিতে সামাজিকভাবে সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]