ভাঙ্গাচোরা ফুটপাতে চলাচলে কষ্ট রাজধানীবাসির

আমাদের নতুন সময় : 11/07/2019

আরিফা রাখি : ভাঙ্গাচোরা ফুটপাতে চলাচলে চরম ভোগান্তি পোহাতে হয় রাজধানীর বাসিন্দাদের। আজিমপুর থেকে আসাদগেট, মতিঝিল, গুলিস্তান, পান্থপথ রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় ফুটপাত ধরে হেঁটে গেলে চোখে পড়ে ফুটপাতে নানা বিড়ম্বনা। ফুটপাতের ওপর কোথাও বিদ্যুৎ বা টেলিফোনের খুঁটি, সুইচ বক্স। কোথাও ফুটপাত জুড়ে বসেছে ফুটব্রিজের খুঁটি, সিঁড়ি। আছে পুলিশ বক্সও। বিভিন্ন বিপণী বিতানের সামনে ফুটপাতের দখল নিয়েছে যানবাহন। আর হকারতো আছেই। বাধ্য হয়ে মূল সড়ক দিয়ে চলাচল করতে হয় পথচারীদের। অনেক ক্ষেত্রে পথচারীদের চলার উপযোগীও নয়। অথচ ফুটপাত পথচারীবান্ধব হলে সড়ক দুর্ঘটনা অনেকাংশে কমে যেতো। অভিজাত এলাকার সামান্য অংশ বাদ দিলে পুরো শহরের অধিকাংশ ফুটপাতের অবস্থাই মোটামুটি এক। একপাশে ফুটপাত অপ্রশস্ত। দুজন পথচারী পাশাপাশি হাঁটতে কষ্ট হয়। ফুটপাতগুলো হয়তো দখল হয়ে গেছে, নয়তো চলাচলের উপযোগী নেই। ধানমন্ডি এক নম্বর সড়কের কাছে গিয়ে ফুটপাত নেই হয়ে গেছে। রাস্তা ফুটপাত মিশে গেছে একসাথে। এখানে বেশকিছু অস্থায়ী দোকানও আছে। ফুটপাত ব্যবহারের উপযোগী না থাকায় ঝুঁকি নিয়ে অনেকেই পথ চলেন রাস্তার পাশ দিয়ে।

সোমবার সকালে নীলক্ষেত মোড় থেকে আসাদগেট পর্যন্ত ফুটপাত ধরে হেঁটে যাওয়ার সময় দেখা গেছে অব্যবস্থাপনার চিত্র। নিউ মার্কেটের দুই নম্বর গেইট থেকে ফুটওভার ব্রিজ পর্যন্ত বিভিন্ন স্থানে দোকান। যেখানে হকার নেই সেখানে ফুটপাত এবড়োথেবড়ো, কোথাও কংক্রিটের ব্লক উঠে গেছে। ঢাকা কলেজের সামনে ফুটপাতে দেখা গেছে বিদ্যুৎ ও টেলিফোনের দুটি সুইচবক্স। সেখানে ফুটপাতের অনেকটা অংশ ভাঙা। টিচার্স ট্রেইনিং কলেজের সামনে ফুটপাতে ফুলের টবসহ নানা সামগ্রী নিয়ে বসেছেন হকাররা।

পথচারী শিক্ষার্থী আসিফ আহমেদ বলেন, কলাবাগান থেকে সিটি কলেজ পর্যন্ত যেরকম যানজট থাকে, তাতে হেঁটে আসাই ভালো। কিন্তু ফুটপাতের যা পরিস্থিতি, তাতে নির্বিঘেœ কারও পক্ষে হেঁটে আসা সম্ভব না। আসলে যারা এগুলোর দায়িত্বে, তাদের তো আর আমাদের মতো রাস্তায় হাঁটতে হয় না। প্রতিবন্ধীদের জন্য সবাই কতো ভালো ভালো কথা বলেন। এই রাস্তায়, এই ফুটপাতে তারা কীভাবে চলবে তা কেউ ভাবে?

কথা হয় পথচারী হাসনাত নাঈমের সঙ্গে। তিনি বলেন, যদি ফুটপাতে ঠিকমতো হাঁটতে পারি তাহলে কেন রাস্তায় যানবাহনের মাঝখানে নামবো। বাস্তবতা হলো, আমাদের ফুটপাত মোটেও পথচারীদের জন্য নেই।

ঢাকা দক্ষিণ সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকতা মোস্তাফিজুর রহমানের কাছে ফুটপাতের বিভিন্ন অব্যবস্থাপনার কথা জানতে চাইলে তিনি বলেন, সরু ফুটপাত রাস্তার পরিধির উপর নির্ভর করে বানানো হয়। পুলিশ বক্স প্রয়োজনে বসানো হয়ে থাকে। রাজধানীতে যে সমস্ত ফুটপাত ভাঙ্গাচোরা আছে সেসব মেরামতের কাজ চলছে। সম্পাদনা : রেজাউল আহসান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]