• প্রচ্ছদ » » নিরাপত্তার সব ক’টা স্তম্ভ যখন ভেঙে পড়ে যৌন নিরাপত্তাও সেখানে অক্ষুণœ থাকে না


নিরাপত্তার সব ক’টা স্তম্ভ যখন ভেঙে পড়ে যৌন নিরাপত্তাও সেখানে অক্ষুণœ থাকে না

আমাদের নতুন সময় : 14/07/2019

হাসনাত কাইয়ূম

এদেশ আপনার। এদেশ পরিচালনার জন্য যে রাষ্ট্রযন্ত্র বানানো হয়েছে সেটাও আপনার। আপনার রাষ্ট্র যদি ভুল পদ্ধতিতে, ভুল পথে পরিচালিত হয়, তাহলে শত চেষ্টা করেও আপনি ভালো থাকতে পারবেন না। আপনি, আপনার সন্তান-সন্তুতি, আপনার দেশ, আপনার সমাজ, আজকে, আগামীকাল, আগামীকালেরও পরে, কীভাবে চললে ভালো থাকবে সেটা আপনাকে ভাবতে হবে। ‘রাষ্ট্রচিন্তা’ এ ভাবনায় আপনার পাশে থাকতে চায়। আপনি রাষ্ট্রচিন্তার পাশে থাকুন
২. ব্রিটিশ আমলে বিশ কোটি মানুষের ভারত শাসন করতো মাত্র দুই লাখ সৈন্য। এর মধ্যে শুধু চল্লিশ হাজার ছিলো ব্রিটিশ, ষাট হাজার উচ্চবর্ণের হিন্দু আর এক লাখ ছিলো দলিত আর মুসলিম। আজকে ষোলো কোটি মানুষের এদেশ চালানোর পরিকল্পনা করে বড়জোড় ষোলোশ মানুষ। আর এটা কার্যকর করে বড়জোড় ষোলো হাজার দালাল আর রাজাকার (রাজাকার = রাজার আকার ধারণ করে যে)। আর এদের মূল হাতিয়ার মাত্র ২টি : একটি হলো লালচ আর একটা হলো বিভক্তি। ৩. নিরাপত্তা একটি সামগ্রিক বিষয়। বর্তমান যুগে এটা প্রধানত রাষ্ট্র কাঠামো এবং শাসন প্রণালীর সঙ্গে সম্পর্কযুক্ত। শাসকদের জবাবাদিহিতার ঊর্ধ্বে রেখে এবং তাদের ইচ্ছামাফিক নির্দোষকে অপরাধী আর বিচারে প্রমাণিত অপরাধীকে সসম্মানে মুক্তি দিয়ে মানুষকে নিরাপদ রাখা যাবে এটা কোনো সুস্থ বিবেকসম্পন্ন মানুষ বিশ্বাস করে না। আর নিরাপত্তার সব ক’টা স্তম্ভ যখন ভেঙে পড়ে, যৌন নিরাপত্তাও সেখানে অক্ষুণœ থাকে না। যে রাষ্ট্রে জীবনেরই নিরাপত্তা নেই এবং যে রাষ্ট্রে মানুষের নিরাপত্তার সবচেয়ে বড় হুমকি রাষ্ট্র নিজে, সে রাষ্ট্রে খোদ রাষ্ট্রকে জবাবদিহিতার আওতায় আনার আগে অন্য কোনো ক্ষেত্রেই আর নিরাপত্তা প্রতিষ্ঠা করতে পারবেন বলে মনে হয় না। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]