• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » নুসরাত পুড়িয়ে হত্যা মামলা সিসি ক্যামেরা বসানোর প্রস্তাব নাকচ করে দেন সিরাজ


নুসরাত পুড়িয়ে হত্যা মামলা সিসি ক্যামেরা বসানোর প্রস্তাব নাকচ করে দেন সিরাজ

আমাদের নতুন সময় : 15/07/2019

এমরান পাটোয়ারী : নুসরাত জাহান রাফিকে যৌননিপিড়নের পর আগুনে পুড়িয়ে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা মামলায় সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সাবেক সদস্য ও পৌর কাউন্সিলর শেখ আবদুল হালিম মামুনসহ দুইজনের সাক্ষগ্রহণ ও জেরা শেষ হয়েছে। গতকাল রবিবার ফেনীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক মামুনুর রশিদের আদালতে তাদের সাক্ষগ্রহণ ও জেরা শেষ হয়। এ মামলায় এখন পর্যন্ত মামলার বাদী মাহমুদুল হাসান নোমানসহ ১৫জন সাক্ষী আদালতে উপস্থিত হয়ে সাক্ষ্যপ্রদান করেন।

মামলার বাদী পক্ষের কৌঁসুলী এম. শাহজাহান সাজু বলেন, বিজ্ঞ আদালতে সোনাগাজী ইসলামিয়া ফাজিল মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সাবেক সদস্য ও পৌর কাউন্সিলর শেখ আবদুল হালিম মামুন ও একই মাদরাসার দপ্তরি মো. ইউসুফ আদালতে সাক্ষ্যপ্রদান করেন। পরে আসামি পক্ষের কৌঁসুলীরা তাদের জেরা করেন। আদালত ১৫ জুলাই (সোমবার) মামলার শুনানির পরবর্তী তারিখ ধার্য করেন। ওই দিন মাদরাসা ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওলানা মো. হোসাইন, চালক নুরুল করিম ও সোনাগাজী পৌরসভার ২ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মো. ইয়াছিনকে আদালতের উপস্থিত থেকে সাক্ষ্যপ্রদানের জন্য নির্র্দেশ দিয়েছেন।

সাক্ষ্যপ্রদান কালে শেখ আবদুল হালিম মামুন বলেন, ‘মাদরাসা পরিচালনা কমিটির একাধিক বৈঠকে আমি নিরাপত্তায় সিসি ক্যামেরা বসানোর প্রস্তাব করি কিন্তু অধ্যক্ষ সিরাজ উদ দৌলা তা সরাসরি নাকচ করে দেন। অধ্যক্ষের কার্যালয় শিক্ষক মিলনায়তনের পাশ থেকে সাইক্লোন সেল্টারে নিয়ে যাওয়ারও বিরোধীতা করি। কিন্তু কোন কাজ হয়নি। ’

 

গত ২৭ জুন মামলার বাদী ও প্রথম সাক্ষী নুসরাতের বড় ভাই মাহমুদুল হাসান নোমানের সাক্ষ্য গ্রহণ শুরু হয় পর্যাক্রমে নুসরাতের বান্ধবী নিশাত সুলতানা ও নাসরিন সুলতানা, মাদরাসার পিয়ন নুরুল আমিন, নৈশ প্রহরী মো. মোস্তফা, কেরোসিন বিক্রেতা লোকমান হোসেন লিটন, বোরকা দোকানদার জসিম উদ্দিন ও কর্মচারী হেলাল উদ্দিন ফরহাদ, নুসরাতের ছোট ভাই রাশেদুল হাসান রায়হান, জহিরুল ইসলাম, হল পরিদর্শক বেলায়েত হোসেন, নুসরাতের মা শিরিন আখতার ও শিক্ষক আবুল খায়ের আদালতে সাক্ষ্যপ্রদান করেন। গতকাল মাদরাসা পরিচালনা কমিটির সাবেক সদস্য ও কাউন্সিলর শেখ আবদুল হালিম মামুন ও মাদরাসার দপ্তরি মো. ইউসুফ সাক্ষ্যগ্রহণ ও জেরা শেষ হয়। সম্পাদনা : ওমর ফারুক

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]