• প্রচ্ছদ » আমাদের বিশ্ব » ৫০ বছরেও যুক্তরাষ্ট্র চাঁদে উল্লেখযোগ্য কোন অভিযান পরিচালনা না করায় হতাশ অলড্রিন ও কলিন্স


৫০ বছরেও যুক্তরাষ্ট্র চাঁদে উল্লেখযোগ্য কোন অভিযান পরিচালনা না করায় হতাশ অলড্রিন ও কলিন্স

আমাদের নতুন সময় : 18/07/2019

সুস্মিতা সিকদার : আগামী ২০ জুলাই উদযাপিত হতে যাচ্ছে চন্দ্রপৃষ্ঠে পদার্পনের ৫০ বছর পূর্তি। ঐতিহাসিক ওই চন্দ্রযাত্রায় এ্যাপোলো-১১ চন্দ্রযান ১৯৬৯ সালের ১৬ জুলাই ফ্লোরিডার কেনেডি স্পেশ সেন্টার থেকে ৩ জন অভিযাত্রী নীল আস্ট্রং, এডওয়ার্ড অলড্রিন ও মাইকেল কলিন্সকে নিয়ে যাত্রা শুরু করে। ৪দিন পর অর্থাৎ জুলাইয়ের ২০ তারিখে নীল আস্ট্রং এবং এডওয়ার্ড অলড্রিন প্রথম চাঁদে অবতরণ করেন এবং চাঁদের মাটিতে পদচারণা করেন। যুক্তরাষ্ট্র পরবর্তী পাঁচ দশকে চাঁদে উল্লেখযোগ্য কোন অভিযান পরিচালনা করতে না পরায় হতাশা প্রকাশ করেছেন জীবিত ওই দুই মহাকাশচারী। ইয়ন

ঐতিহাসিক এই ঘটনা সেদিন টেলিভিশনে সরাসরি সম্প্রচার করা হয়। বিশ্বের ৬৫ কোটি মানুষ একসঙ্গে সেই দৃশ্য উপভোগ করেছিলো। চন্দ্র অভিযানকে বলা হয়েছিলো, ‘মানুষের জন্য একটি ছোট পদক্ষেপ কিন্তু মানবজাতির জন্য এটি এক বিরাট অগ্রগতি।’

তিন মহাকাশচারী অভিযান শেষ করে ফিরে আসার পর তাদের নায়কোচিত অভিনন্দন জানানো হয়। তাদের মধ্যে এখন বেঁচে আছেন অলড্রিন এবং কলিন্স। ২০১২ সালে মারা যান নীল আমস্ট্রং। অলড্রিন ও কলিন্স বলেন, আজ থেকে ৫০ বছর আগে আমরা তিনজন চাঁদে যাই। আমরা চাঁদে অবতরণ করি, সেখানে পদচারণা করি, তারপর ফিরে আসি। এই অভিযানের পর কেটে গেছে দীর্ঘ ৫০টি বছর। কিন্তু ওই অভিযানের পরে চাঁদে অভিযানের আর কোন উল্লেখ যোগ্য পদক্ষেপ দেখা যায়নি। যা খুবই দুঃখ জনক। আমরা মনে করি, আমাদের লজ্জিত হওয়া উচিত আমরা এর চেয়ে ভালো কিছু করতে পারিনি।

এরপর থেকে ১৯৭২ সাল পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র চাঁদে বেশ কয়েকটি অভিযান পরিচালনা করেছিলো। তবে তা ছিলো মনুষ্যহীন। ১৯৭২ সালের পর থেকে যুক্তরাষ্ট্র বা বিশ্বের অন্যকোন দেশ চাঁদে মানুষ পাঠাতে পারেনি।

প্রেসিডেন্ট জর্জ বুশ ১৯৮৯ সালে চাঁদে অভিযানের প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। ঠিক একই রকম প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন জর্জ ডব্লিউ বুশ ২০০৪ সালে। তখন তিনি মঙ্গলে অভিযান পরিচালনারও অঙ্গীকার করেছিলেন। কিন্তু তারা দুজনই চন্দ্র অভিযান খাতে তহবিল সংগ্রহে কংগ্রেস সদস্যদের বিরোধের মুখে পড়েন। সেই সাথে ¯œায়ুযুদ্ধ শুরু হলে জনগণের মতামতও পরিবর্তন হয়।

২০১৭ সালে ডোনাল্ড ট্রাম্প ক্ষমতায় এসে চাঁদ ও মঙ্গলে অভিযান পরিচালনার ঘোষণা দিলেও ট্রাম্পের সঙ্গে স্পেস এজেন্সির মধ্যে রয়েছে ব্যাপক টানাপোড়েন।

গত সপ্তাহে নাসার প্রশাসক জিম ব্রাইডেনস্টাইন হিউম্যান স্পেশ এক্সপ্লোরেশন ডিরেক্টর বিল জারসেনমেয়ারকে চাকুরিচ্যুত করেন। তাছাড়া ট্রাম্প ঘোষিত ২০২৪ সালে চন্দ্র অভিযানের সময় সীমার সাথে দ্বিমত পোষণ করেছে নাসা কর্তৃপক্ষ।

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]