• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » ক্লাস চলাকালে নোয়াখালী পৌর পার্কে শিক্ষার্থীদের আড্ডা নিষিদ্ধ করেছেন এমপি, অভিভাবকদের মাঝে স্বস্তি


ক্লাস চলাকালে নোয়াখালী পৌর পার্কে শিক্ষার্থীদের আড্ডা নিষিদ্ধ করেছেন এমপি, অভিভাবকদের মাঝে স্বস্তি

আমাদের নতুন সময় : 19/07/2019

অহিদ উদ্দিন : অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নোয়াখালী-৪ (সদর-সুবর্ণচর) আসনের সংসদ সদস্য একরামুল করিম চৌধুরীর এ সিদ্ধান্তকে স্বাগত জানান অভিভাবকরা।

গত মঙ্গলবার শহরের পৌর পার্কে অভিযান চালিয়ে ১৮জন ছাত্রছাত্রীকে আটক করে সুধারাম থানা পুলিশ। অভিযানের পর থেকে পৌর পার্কে স্কুল-কলেজ ও মাদ্রাসা পড়–য়া ছেলে-মেয়েদের আড্ডা কমে গেছে। সতর্ক হয়েছেন অভিভাবকরা। এমন উদ্যোগের জন্য জেলায় প্রশংসিত হয়েছেন একরামুল করিম চৌধুরী এমপি। সুধারাম থানার ইন্সপেক্টর (তদন্ত) আবদুল বাতেন  বলেন, নোয়াখালী সরকারি মহিলা কলেজ, সরকারি গার্লস স্কুল, জিলা স্কুল, পাবলিক কলেজসহ শহরের শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা ক্লাস চলাকালীন ফাঁকি দিয়ে দীর্ঘদিন যাবৎ পৌর পার্কে আড্ডা দিচ্ছিল। এতে অনেক ছাত্রী ইভটিজিংয়ের শিকারও হয়েছেন। তাই সকাল ৯টা থেকে বিকাল ৪টা পর্যন্ত শিক্ষার্থীদের প্রবেশ নিষেধ করা হয়েছে।

একরামুল করিম চৌধুরী এমপি বলেন, ‘প্রায়ই দেখি ওই পার্কে শিক্ষার্থীরা জুটি বেঁধে আড্ডা দেয়। অভিভাবকরা ফোন করে ও ফেইসবুকে আমাকে বলেছেন, আমাদের ছেলে-মেয়েরা স্কুলে যেতে পারছে না। আমার কাছ থেকে সহযোগিতা চায় অভিভাবকরা। চারদিক থেকে আমার কাছে পরামর্শ আসে। গত ছয় মাস থেকে আমি এখনাকার মহিলা কলেজ, গার্লস স্কুলের সামনে থেকে বখাটেদের আড্ডা বন্ধ করেছি। কিন্তু বখাটে ছেলেগুলো এখন বিভিন্ন রেস্টুরেন্টে ও ওই পার্কের মধ্যে চলে এসেছে। তাই পার্কে শিক্ষার্থীদের ইভটিজিং এবং অশোভন আচরণ বন্ধে ব্যবস্থা নিতে পুলিশকে নির্দেশ দিয়েছি।’ সম্পাদনা : তাইমুন ইসলাম

 

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]