শিল্পকলা পদক ২০১৮ পেলেন সাত গুণীজন

আমাদের নতুন সময় : 19/07/2019

ইউসুফ বাচ্চু : বাঙালি জাতির প্রতিটি সংগ্রাম, আন্দোলন ও অর্জনে এদেশের শিল্পী ও সংস্কৃতিকর্মীরা নাটক, সঙ্গীত, নৃত্য, আবৃত্তি, চিত্রকর্মসহ শিল্পের সকল শাখার মাধ্যমে তাঁদের অপরিসীম অবদান রেখেছেন। হাজার বছরের সমৃদ্ধ ঐতিহ্যের লালন, ভাষা আন্দোলন ও মুক্তিযুদ্ধের মূল্যবোধ প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে কাজ করে চলেছেন আমাদের শিল্পী ও সংস্কৃতিকর্মীরা। বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে সমুন্নত রাখতে তাঁরা নি:স্বার্থভাবে অবদান রেখে চলেছেন। দেশের শিল্প সংস্কৃতির ক্ষেত্রে জাতীয় পর্যায়ে বিশেষ অবদানের জন্য গুণীজনদের অবদানকে সম্মান ও স্বীকৃতি জানাতে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির উদ্যোগে ২০১৩ সাল থেকে ‘শিল্পকলা পদক’ প্রদান করা হয়। বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদানের জন্য এবছর সাতজনকে ‘শিল্পকলা পদক ২০১৮’ প্রদান করা হয়েছে। গতকাল বৃহস্পতিবার বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা মিলনায়তনে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে গুণীশিল্পীদের হাতে পদক তুলে দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি  মো. আবদুল হামিদ। এর আগে গত ১৬ জুলাই জাতীয় নাট্যশালা সেমিনার কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ‘শিল্পকলা পদক ২০১৮’-এর বিস্তারিত তুলে ধরেন একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকী। এসময় উপস্থিত ছিলেন সংস্কৃতি বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব রোকসানা মালেক, এনডিসি এবং একাডেমির সচিব বদরুল আনম ভুঁইয়াসহ একাডেমির কর্মকর্তা কর্মচারীবৃন্দ। এবছর শিল্পকলা পদক প্রাপ্ত গুণীজনরা হলেন, কণ্ঠসঙ্গীত গৌর গোপাল হালদার, যন্ত্রসঙ্গীত, সুনীল চন্দ্র দাস, নাট্যকলা ম. হামিদ, লোক সংস্কৃতি মিনা বড়–য়া, চারুকলা অলকেশ ঘোষ, নৃত্যকলা,শুক্লা সরকার, আবৃত্তি জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়। নীতিমালা অনুযায়ী ১৬ সদস্যের কমিটি প্রতি বছর পদকের জন্য গুণীজন নির্বাচন করে থাকেন। ‘শিল্পকলা পদক’-এর জন্য নির্বাচিত গুণীজনদের প্রত্যেককে একটি স্বর্ণপদক, ১ লক্ষ টাকা সম্মানী ও একটি সনদ প্রদান করা হয়। সম্পাদনা : ওমর ফারুক




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]