প্রিয়া সাহার পরিসংখ্যান

আমাদের নতুন সময় : 22/07/2019

বাংলাদেশের হিন্দু জনসংখ্যা ১৯৪৭ সালে ছিলো ৩০.৯ শতাংশ। ২০১৯-এ তা দাঁড়িয়েছে ৮.৫ শতাংশ (এখানেও কিছুটা টুইস্টিং থাকতে পারে)। প্রিয়া সাহা হয়তো এই দীর্ঘদিনের ‘মিসিং মাইনরিটি’ বা ‘নিখোঁজ সংখ্যালঘু’ সংখ্যাকেই ‘ডিসেপেয়ার’ বলেছেন। বর্তমান জনসংখ্যার ৩১ শতাংশ মাইনরিটি হলে যে সংখ্যা হতে পারতো আর এখন যা আছে এই দুটোর বিয়োগফলকেই হয়তো তিনি দেখিয়েছেন মিসিং মাইনরিটি (তার ভাষায় ডিসেপেয়ার) হিসেবে। তিনি হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান সব এক ফিগারে এনেছেন। এই সংখ্যাটাই হয়তো বলেছেন ৩৭ মিলিয়ন (৩ কোটি ৭০ লাখ)। আর বর্তমান দেশে সব ধরনের মাইনরিটির সংখ্যা বলেছেন, ১৮ মিলিয়ন (১ কোটি ৮০ লাখ)। খেয়াল করুন, বর্তমান মাইনরিটির সংখ্যা কিন্তু খুব একটা হেরফের বলেননি। ফলে প্রিয়া সাহার দেয়া সংখ্যাকে যারা ‘গুমে’র পরিসংখ্যান হিসেবে দেখিয়ে অসম্ভব বলে হাসি দিয়ে উড়িয়ে দিচ্ছেন তারা সম্ভবত না বুঝেই তা করছেন। প্রিয়া সাহাদের যারা ব্যবহার করেন তাদের রাজনীতি এতো হালকা নয়। তাই প্রিয়া সাহার বক্তব্যকে এতো হালকাভাবে নিয়ে হাস্যরস করার কোনো কারণ নেই। ভাবার কারণ নেই যে, তার মুখে যা আসলো তাই বলে বসেছেন তিনি। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]