অমরনাথ যাত্রাপথে প্রচুর অস্ত্র-গোলাবারুদ  উদ্ধার, পাকিস্তানকে দায়ি করলো ভারত

আমাদের নতুন সময় : 03/08/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরের তীর্থস্থান অমরনাথের যাত্রাপথে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক, একটি ল্যান্ডমাইন আর একটি ইপার রাইফেল উদ্ধার করেছে ভারতীয় সেনাবাহিনী। ভারতীয় সেনাবাহিনী দাবি করেছে, এই পথে তীর্থযাত্রীদের উপর বড় ধরণের হামলার পরিকল্পনা করেছিলো পাকিস্তান ও পাকিস্তান ভিত্তিক জঙ্গী সংগঠনগুলো। এছাড়াও পর্যটকদের যতদ্রুত সম্ভব এই এলাকা ত্যাগের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। এনডিটিভি, ইয়ন, আনন্দবাজার, এএনআই।

এ প্রসঙ্গে চিনার কোর কমান্ডার লেফটেন্যান্ট জেনারেল কেজেএস ঢিলান জানান, কয়েক দিন ধরেই গোয়েন্দা সূত্রে খবর আসছিল অমরনাথ যাত্রাপথে পাকিস্তানের মদতপুষ্ট জঙ্গিরা হামলা চালাতে পারে। সেই বার্তা পাওয়া মাত্রই গোটা যাত্রাপথ জুড়ে তল্লাশি অভিযান চালানো হয়। সে সময়েই বোমা, ল্যান্ডমাইন ও এম-২৪ রাইফেলটি উদ্ধার হয়। রাইফেলটিতে একটি লং রেঞ্জ টেলিস্কোপও লাগানো ছিলো।   সেনা সূত্রে খবর, উদ্ধার হওয়া ল্যান্ডমাইনটির গায়ে যে তথ্য রয়েছে তা থেকে জানা গিয়েছে সেটি পাকিস্তানের অর্ডন্যান্স ফ্যাক্টরিতে তৈরি। আর টেলিস্কোপিক স্নাইপার রাইফেলটি যুক্তরাষ্ট্রের তৈরি। জেনারেল ঢিলান আরো জানান, তল্লাশি অভিযান এখনো চলছে। এটা থেকে স্পষ্ট যে এই ঘটনার সঙ্গে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী প্রত্যক্ষভাবে জড়িত। তারা কাশ্মীরে শান্তি বিঘিœত করার চেষ্টা চালাচ্ছে। এটা কোনোভাবেই হতে দেয়া যাবে না।

এদিকে শুক্রবার জম্মু কাশ্মীর সরকার পর্যটকদের অবস্থানকালীন সময় কমিয়ে দ্রুত ফিরে যাওয়ার তাগিদ দিয়েছেন। তারা বলছেন, সন্ত্রাসী হামলার সম্ভাবনা উড়িয়ে দেয়া যায়না। তাই পর্যটকদের ফিরে যাওয়াই মঙ্গল। এই সক্রান্ত একটি জারি করা পরিপত্রে বলা হয়েছে, ‘সন্ত্রাসবাদী হুমকির বিষয়ে সর্বশেষ গোয়েন্দা প্রতিবেদনকে মাথায় রেখে আমরা এই পরিপত্র জারি করছি। নির্দিষ্টভাবে অমরনাথ যাত্রার উপর হুমকি রয়েছে। কাশ্মীর উপত্যকার নিরাপত্তাকেই সর্বঅধিক গুরুত্ব দেয়া হবে। পর্যটক ও অমরনাধ যাত্রীদের নিরাপত্তার বিষয়টি মাথায় রেখে আমরা তাদের নিজেদের ভ্রমণ সংক্ষিপ্ত করার পরামর্শ দিচ্ছি।’ সম্পাদনা : ইকবাল খান

 

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]