• প্রচ্ছদ » সর্বশেষ » আকসাই চীন ও আজাদ কাশ্মীরকেও জম্মু-কাশ্মীরের অংশ দাবি করলেন অমিত শাহ্


আকসাই চীন ও আজাদ কাশ্মীরকেও জম্মু-কাশ্মীরের অংশ দাবি করলেন অমিত শাহ্

আমাদের নতুন সময় : 07/08/2019

আসিফুজ্জামান পৃথিল : কাশ্মীর সবসময় ভারতেরই অংশ। আমি যখন কাশ্মীরের কথা বলি, এর মধ্যে পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীর আছে, আছে আকসাই চীনও। একে নিজেদের রাখতে আমি জীবন দিয়ে দেবো। ভারতের পার্লামেন্টের নি¤œকক্ষ‘ লোকসভায় দাঁড়িয়ে এই মন্তব্য করেছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ। এনডিটিভি, ইয়ন নিউজ।

সোমবারই জম্মু ও কাশ্মীর থেকে ৩৭০ নম্বর অনুচ্ছেদ তুলে নিয়ে রাজ্যকে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে বিভক্ত করার সিদ্ধান্তের কথা জানিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার। মঙ্গলবার বিরোধীদের ক্ষোভ প্রদর্শনের মুখে পড়তে হয় অমিত শাহকে। তখনই তিনি জানান, ‘এটা কোনও রাজনৈতিক পদক্ষেপ নয়। পার্লামেন্টের পূর্ণ ক্ষমতা রয়েছে দেশের জন্য আইন প্রণয়ন করার। ভারতের সংবিধান এবং জম্মু ও কাশ্মীরের সংবিধানে এমন করার সম্মতি রয়েছে। কাশ্মীর ভারতের অখ- অংশ। আমি এটা সম্পূর্ণ পরিষ্কার করে দিতে চাই যে যখনই আমরা জম্মু ও কাশ্মীর বলি, তার মধ্যে পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরও রয়েছে (গিলগিট-বালটিস্তান সহ) এবং আকসাই চীনও পড়ে। এ নিয়ে কোনো সন্দেহ থাকা উচিত নয়। সমগ্র জম্মু ও কাশ্মীর হল ভারতের অখ- অংশ।’

অমিত শাহ’র বক্তব্যের বিরোধিতা করেন কংগ্রেস নেতা ও পার্লামেন্টের বিরোধীদলীয় নেতা অধীররঞ্জন চৌধুরী। তিনি অভিযোগ তোলেন, জম্মু ও কাশ্মীরকে কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে পরিণত করে সরকার আইন লঙ্ঘন করছে। তিনি অভিযোগ করেন, এটা অভ্যন্তরীণ বিষয় নয়। অমিত শাহ এরপর অধীররঞ্জন চৌধুরীকে বলেন, ‘কাশ্মীরের সীমার মধ্যে পাকিস্তান অধিকৃত কাশ্মীরও রয়েছে… এর জন্য প্রাণও দিতে পারি।’ অমিত শাহ এই বিষয়ে কংগ্রেসের মতানৈক্যর প্রসঙ্গও তোলেন। তিনি বলেন, আগে কংগ্রেস ঠিক করুক তারা এই সিদ্ধান্তের পক্ষে না বিপক্ষে। সোমবার রাজ্যসভায় জম্মু ও কাশ্মীরকে দু’টি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলে রূপান্তরিত করতে বিজেপি’র বিল পাশ হয়। সরকার সেখানে সংখ্যালঘু হলেও বিরোধীদের একাংশ ওয়াক আউট করে। অনেকে সমর্থন জানায় সরকারকে। তারা হল মায়াবতীর বহুজন সমাজ পার্টি, নবীন পট্টনায়েকের বিজু জনতা দল, জগন রেড্ডির ওয়াইএসআর কংগ্রেস, চন্দ্রবাবু নাইডুর তেলেগু দেশম পার্টি এবং অরবিন্দ কেজরিওয়ালের আম আদমি পার্টি। কিন্তু কংগ্রেসের একাংশ সরকারের এই সিদ্ধান্তের বিরোধিতা করলেও অনেক কংগ্রেস নেতা আবার সমর্থনও করেছেন। সম্পাদনা : ইকবাল খান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]