• প্রচ্ছদ » সাবলিড »  প্রতি ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত ১০১ জন, ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২,৪২৮, সারাদেশে আক্রান্ত ৩২,৩৪০


 প্রতি ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত ১০১ জন, ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত ২,৪২৮, সারাদেশে আক্রান্ত ৩২,৩৪০

আমাদের নতুন সময় : 08/08/2019

তাসকিনা ইয়াসমিন  : স্বাস্থ্য অধিপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার এবং কন্ট্রোল রুমের সহকারী পরিচালক ডা. আয়শা আক্তার গতকাল বুধবার জানান, গত জানুয়ারি থেকে এ পর্যন্ত হাসপাতাল থেকে চিকিৎসা শেষে বাড়ি ফিরেছে ২৩ হাজার ৬শ ১০  জন রোগী। সারাদেশে হাসপাতালে ভর্তি রোগী আছে ৮  হাজার ৭শ ৭ জন। শুধু ঢাকা শহরেই ডেঙ্গু রোগে আক্রান্ত হয়ে ৪০টি হাসপাতালে ভর্তি আছে ৫ হাজার ৩শ ৮৯ জন। ঢাকার বাইরে ৮টি বিভাগে ৩ হাজার ৩শ ১৮ জন। গত জুলাই মাসে মোট আক্রান্ত হয়েছে ১৬২৫৩ জন। আগস্টের এই ৭ দিনে আক্রান্ত হয়েছে ১৫৮৭৯ জন।

এদিকে গতকার বিকেলে ইউনাইটেড হাসপাতালে আইসিইইতে চিকিৎসাধীন তিতুমীর কলেজের শিক্ষার্থী মেহেদী হাসান মারা গেছেন।

ডা. আয়শা জানান, সারাদেশে ডেঙ্গু ফিভারে গত ২৪ ঘণ্টায় ২৪২৩ জন, ডেঙ্গু হেমোরেজিকে ৫ জন আক্রান্ত হয়েছে। এরমধ্যে ঢাকায় আক্রান্ত হয়েছে ১ হাজার ২৭০, ঢাকার বাইরে ১ হাজার ১৫৩ জন। ঢাকার বাইরে ডেঙ্গু আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। গতকাল ৭ আগস্ট ঢাকায় আক্রান্ত রোগী ছিলো ১২৭৫ ও ঢাকার বাইরে ১১৫৩ জন, ৬ আগস্ট ঢাকায় ১২৮৪ ও ঢাকার বাইরে ১০৬৪ জন, ৫ আগস্ট ঢাকায় ছিলো ১১৭৯ জন ঢাকার বাইরে ৯০৬ জন, ৪ আগস্ট ঢাকায় ছিলো ১০৭৫ জন ঢাকার বাইরে ৮২১ জন, ৩ আগস্ট ঢাকায় রোগী ছিলো ১০১৭ ঢাকার বাইরে ৬৮৬ জন।

তিনি জানান, গত ২৪ ঘন্টায় ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৬২, মিটফোর্ড হাসপাতালে ১৩৮, ঢাকা শিশু হাসপাতালে ৪৪, শহীদ সোহ্রাওয়ার্দীতে ৯৭, বারডেম ২৪ (এর মধ্যে ১ জন হেমোরেজিক), বিএসএমএমইউ ৩৫, পুলিশ হাসপাতালে ৪২, মুগদা মেডিকেল কলেজে ১৩৯, বিজিবি হাসপাতাল ৮, কুর্মিটোলা জেনারেল হাসপাতাল ১১০, সম্মিলিত সামরিক হাসপাতালে ৪৫ জন ডেঙ্গুরোগী ভর্তি হয়েছে।

ঢাকার বেসরকারি হাসপাতালগুলোর মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় হলি ফ্যামিলি রেড ক্রিসেন্ট হাসপাতালে ৩১, বাংলাদেশ মেডিক্যালে ২৮, ইবনে সিনায় ১৫, স্কয়ার হাসপাতালে ১৬, সেন্ট্রাল হাসপাতালে ২৫, গ্রিন লাইফ মেডিকেল হাসপাতালে ১৬, ইউনাইটেড হাসপাতালে ৩০, খিদমা হাসপাতালে ২, শহীদ মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৯, সিরাজুল ইসলাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ১৯, এপোলো হাসপাতালে ১৬, বিআরবি হাসপাতালে ১০, আজগর আলী হাসপাতালে ১৭, উত্তরা আধুনিক মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১৬, ইসলামী ব্যাংক মেডিকেলে ২২ (১ জন হেমোরেজিক), পপুলার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ৮ (২ জন হেমোরেজিক), আনোয়ার খান মডার্ন মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ২৪ ও শমরিতা হাসপাতালে ৯ জন ভর্তি হয়েছে।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক জানান, ঈদের ছুটিতে বাড়ি যাবার পর কেউ ডেঙ্গু আক্রান্ত হলে যেন সঠিক চিকিৎসা পায় এ লক্ষ্যে সব ধরনের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। উপজেলা পর্যায়ে স্বাস্থ্য কর্মকর্তাদের মোবাইল নম্বর জানানো হবে যেন কেউ জ্বরে আক্রান্ত হলে চিকিৎসা নিতে পারে। সম্পাদনা : রেজাউল আহসান

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]