• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » মঙ্গলে যাওয়ার পর নভোচারীরা স্মৃতিশক্তি হ্রাস ও বিষন্নতায় পড়তে পারেন, আশঙ্কা বিজ্ঞানীদের


মঙ্গলে যাওয়ার পর নভোচারীরা স্মৃতিশক্তি হ্রাস ও বিষন্নতায় পড়তে পারেন, আশঙ্কা বিজ্ঞানীদের

আমাদের নতুন সময় : 08/08/2019

রাশিদ রিয়াজ : মার্কিন বিজ্ঞানীরা বলছেন, আগামী দুই দশকের মধ্যে নভোচারীরা মঙ্গলে যাত্রা শুরুর কথা থাকলেও তারা তাদের শারীরিক সমস্যা নিয়ে চিন্তিত। কারণ সাম্প্রতিক এক সমীক্ষা বলছে মঙ্গল থেকে ফিরে আসার পর তাদের স্মৃতি শক্তি হারিয়ে ফেলতে পারেন তারা। এমনকি বিষণœতায় ভুগতে পারেন। কোরোনিকের প্রভাব ছাড়াও নি¤œ মাত্রার বিকিরণে এধরনের শারীরিক সমস্যায় ভুগবেন তারা। ক্যালিফোর্নিয়া ইউনিভার্সিটির একদল গবেষক করোনিক ও বিকিরণের ইঁদুরের ওপর কি প্রভাব ফেলে তা দেখেই তা নভোচারীদের এধরনের বিপাকে ফেলতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন। ডেইলি সাবা

ইনিউরো ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক প্রতিবেদনে বিজ্ঞানীরা বলছেন, ৬ মাস ধরে ইঁদুরের ওপর পরীক্ষা চালিয়ে তারা দেখতে পেয়েছেন প্রানিটির মষিÍষ্কে তা এমন নেতিবাচক প্রভাব পড়ে যে স্মৃতিশক্তির বেশ ক্ষয় ঘটে। মস্তিষ্কের যে অংশ শিখতে ও মনে রাখতে সাহায্য করে তা মঙ্গলের পরিবেশে বিঘিœত হয়। নভোচারীদেরও অন্তত ৬ মাস মঙ্গল অভিযানে  থাকতে হবে।

নাসা মঙ্গল যাত্রার প্রস্তুতি নিচ্ছে কিন্তু নভোচারীদের স্বাস্থ্যের ঝুঁকি সম্পর্কে সজাগ করে দিয়েছেন ওই গবেষক দল। মানব মস্তিষ্কের ‘আমিগডালা’ নামে একটি অংশ কোনো কিছু মনে আনতে প্রত্যক্ষভাবে সাহায্য করে যা বিকিরণে ক্ষতিগ্রস্ত হবে। কিন্তু এসব ক্ষতিকর উপসর্গ থেকে নভোচারীদের রক্ষার উপায় এখনো বের করতে পারেননি বিজ্ঞানীরা। ফলে নভোচারীরা যখন মঙ্গলগ্রহের বিশেষ পরিবেশ থেকে ফিরে আসবেন পৃথিবীতে তখন তারা এক ভিন্ন পরিবেশে এসে কার্যত বেশ কিছু স্বাস্থ্যজনিত ক্ষতির মোকাবেলায় পড়বেন।

 

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]