• প্রচ্ছদ » » মশার উৎপত্তিস্থল ধ্বংস করতে টাকার দরকার ততোটা নয়, যতোটা দরকার সততা-দক্ষতা আর বুদ্ধিমত্তা


মশার উৎপত্তিস্থল ধ্বংস করতে টাকার দরকার ততোটা নয়, যতোটা দরকার সততা-দক্ষতা আর বুদ্ধিমত্তা

আমাদের নতুন সময় : 08/08/2019

ফিরোজ আহমেদ

নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে নাগরিকদের দোষারোপ শাসকদের মধ্যকার সবচেয়ে খারাপ অংশের বৈশিষ্ট্য। ডেঙ্গুর কথাই ধরুন। প্রয়োজন উৎস ধ্বংস করা, উৎসটা ব্যক্তি আর সরকার উভয়ের আওতাধীন এলাকাতেই থাকতে পারে। দুদিন আগে, এক বিকালে দোতলা বাসের উপর তলা থেকে বৃষ্টির আগে যেমন খটখটে শুকনোর মাঝেও যেমন দেখলাম রাস্তার মাঝখানের ঘেরা জায়গাটাতে জমে থাকা পানির অজ¯্র ছোট ছোট পুকুর, শেষ কবেকার বৃষ্টিতে তা জমেছিলো, কিংবা হয়তো গোটা বর্ষাজুড়েই তা রয়ে গেছে। কাদার মাঝে গভীর হয়ে বসা চাকা, অন্য ভারি যন্ত্রপাতির জন্য দেবে যাওয়া মাটি কিংবা নরম মাটিতে চেপে বসা বুটের দাগ… এডিসের জন্য যথেষ্ট পরিসর তৈরি করেছে। এগুলোর সবগুলোই কিন্তু খুব সহজে দূর করা সম্ভব ছিলো। আর ঘটনাক্রমে রাতে বৃষ্টির পর দেখা গেলো মাইলের পর মাইল সড়ক বিভাজকের মাটিতে জমা চাপ চাপ পানি। এর বড় অংশেই নিরুপদ্রবে মশারা ডিম পেড়ে যেতে পারবে। এখানে পানি জমেছে কারণ খুবই খারাপ পদ্ধতিতে পানি নিষ্কাশনের বন্দোবস্ত না রেখেই এগুলো নির্মাণ করা হয়েছে। ভয় হয়, এগুলোর অজুহাতে সরকার না আবার সেখানে গাছপালা উচ্ছেদ করে পুরোটা পাকা করে বাধিয়ে দেয়ার প্রকল্প না নেয়। কিন্তু সত্যি, সড়কের বিভাজকে কি গাছ লাগানো হবে, সেটারও পরিকল্পনা থাকা জরুরি। কিন্তু সব মিলে নিশ্চয়তা দেয়া যায়, যেকোনো নিরপেক্ষ পর্যবেক্ষণে প্রমাণিত হবে যে, এই মূহুর্তে ঢাকায় এডিস মশার সর্ববৃহৎ একক প্রজনন ক্ষেত্রের মালিক গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার এবং দুটি নগর কর্তৃপক্ষ। এই রায় দেয়ার জন্য ডবিøউএইচওর অপেক্ষায় বসে থাকার প্রয়োজন ছিলো না, এটা যারা সামান্য খেয়াল করেছেন তারা প্রথম থেকেই বলে আসছেন।বিদেশি বিশেষজ্ঞরাও ভুল কিছু বলেননি। কিন্তু এখনো নতুন কিছুও বলেননি। তবুও খুব ভালো ছাত্রের মতো চেহারা করে উৎসুক মুখে কেন তাদের কথা কর্তারা শুনছেন? কারণ যাতে মানুষকে একটা ধারণা দেয়া যায়, আরে ভাই, বিষয়টা অতো সোজা নাকি? আগে শিখতে দেন, বিদেশিরা বলতেছে… আর এভাবে নিজেদের কালক্ষেপণ আর অযোগ্যতাকে একভাবে জায়েজ করা যায়। এখন সকলেই জানেন, বাতাসে উড়ন্ত মশা মেরে কাজ হবে না, মশার প্রজননস্থল ধ্বংস করতে হবে। কিন্তু সেই মশার সেই উৎপত্তিস্থল ধ্বংস করতে হলে টাকার দরকার ততোটা না, যতোটা দরকার সততা, দক্ষতা আর বুদ্ধিমত্তা। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]