ঈদযাত্রায় ১৭১টি বাস পাচ্ছে গার্মেন্টস শ্রমিকরা

আমাদের নতুন সময় : 09/08/2019

মো. আখতারুজ্জামান : গার্মেন্টস শ্রমিকদেও ঈদযাত্রা সহজ করার জন্য বাংলাদেশ সড়ক পরিবহনের (বিআরটিসি) বাসগুলো নির্ধারিত হয়েছে। এর মধ্যে আজ সকাল ৭টা থেকে উত্তরবঙ্গের উদ্দেশে গাজীপুর চৌরাস্তা থেকে প্রতি ১৫ মিনিট পরপর মোট ১৫১টি বাস ছাড়বে। এছাড়া চট্টগ্রাম থেকে দেশের বিভিন্ন এলাকার উদ্দেশে আরও ২০টি বাস ছেড়ে যাবে।

সার্বিক বিষয়ে বিজিএমইএ’র সভাপতি ড. রুবানা হক বলেন, গার্মেন্টস শ্রমিকদের বেশিরভাগ নারী, এরা আমাদের সম্পদ। এ খাতে যারা কাজ করে তাদের বেশিভাগ শ্রমিকরা দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলের। তারা যাতে সুন্দরভাবে বাড়িতে পৌঁছাতে পারে সেই লক্ষ্যে কাজ করছি। আমরা সরকারের কাছে এ বিষয়ে প্রস্তাবনা দিয়েছিলাম। সরকার আমাদের প্রস্তাবে রাজি হয়ে বিশেষ বাস বরাদ্ধ করেছে।

পোশাক শ্রমিকরা যাতে নিরাপদ ও নির্বিঘেœ তাদের প্রিয়জনদের সাথে বাড়িতে ঈদ উৎপানের আনন্দ ভাগাভাগি করতে পারে সে জন্য তৈরি পোশাক খাতের মালিকদের সংগঠন বিজিএমই’র উদ্যোগের পরিপ্রেক্ষিতে বিআরটিসি এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রীর কাছে একটি আবেদন করা হয়। সে আবেদনে বিজিএমইএ’র সভাপতি লেখেন, পোশাক শিল্পে প্রত্যক্ষভাবে ৪৫ লাখ এবং পরোক্ষভাবে দুই কোটি শ্রমিক-কর্মচারী কর্মরত রয়েছে। এ জনশক্তির বেশির ভাগই মুসলমান। ফলে ঈদের ছুটি শুরু হলে ঢাকা ও আশপাশের ৪৫ লাখ শ্রমিকরা বাস ট্রেন এবং লঞ্চের মাধ্যমে বাড়ি যেতে ঝাঁপিয়ে পড়ে। তাতে বাস, ট্রেন এবং লঞ্চের ওপর অতিরিক্ত চাপ সৃষ্টি হয়। বাড়ি যেতে ভোগান্তি এবং হয়রানির শিকার হতে হয়।

একইভাবে শ্রমিকদের জন্য বিশেষ ট্রেন ও লঞ্চের ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য রেলপথ ও নৌ মন্ত্রণালয়ের কাছে আবেদন করা হয়। তবে ওই দুই মন্ত্রণালয় থেকে তেমন সাড়া মেলেনি। তাই এ বছর ট্রেন কিংবা লঞ্চে পোশাক শ্রমিকদের জন্য বিশেষ কোনো ব্যবস্থা নেয়নি সরকার। সম্পাদনা : শাহানুজ্জামান টিটু, আহসান




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]