• প্রচ্ছদ » সাবলিড » ডা. লেলিন চৌধুরী বললেন, ডেঙ্গু আতঙ্ক দূর করার জন্য মানুষকে সঠিক তথ্য দিতে হবে


ডা. লেলিন চৌধুরী বললেন, ডেঙ্গু আতঙ্ক দূর করার জন্য মানুষকে সঠিক তথ্য দিতে হবে

আমাদের নতুন সময় : 09/08/2019

আমিরুল ইসলাম : প্রিভেনটিভ মেডিসিন গবেষক ডা. লেলিন চৌধুরী বলেছেন, জনগণের মধ্য থেকে ডেঙ্গু আতঙ্ক দূর করার জন্য তাদের সঠিক তথ্য দিতে হবে। সঠিক তথ্য দেয়া গেলে এবং মানুষের প্রত্যাশা পূরণ করা গেলে আতঙ্ক দূর হবে।

তিনি বলেন, ঢাকা সিটি করপোরেশনে বা অন্য কোথাও ফগার মেশিন দিয়ে যে ওষুধ ছিটানো হচ্ছে এর উপর মানুষের আস্থা নেই। যদি মানুষকে দেখানো যেতো, প্রকাশ্যে ওষুধগুলো নিয়ে একটি ডেমনেস্ট্রেশন করা যেতো তাহলে মানুষ যদি দেখতো মশা মরছে তাহলে আস্থা তৈরি হতো। ফগার মেশিনগুলো রাস্তার যে অংশে স্প্রে করে সেখানে তো আসলে এডিস মশা হয় না। সেখানে হয় কিউলেক্স মশা। ফলে এটা যে ফাঁকি মানুষ সেটা বোঝে। ডেঙ্গুতে লোকজন আক্রান্ত হচ্ছে, চিকিৎসা হচ্ছে, বেশিরভাগ ভালো হচ্ছে, কেউ কেউ মারা যাচ্ছে… এই বিষয়গুলো যদি প্রকাশ্যে দায়িত্বশীল মানুষজন বলতো তাহলে  জনমনে আস্থা তৈরি হতো। গণমাধ্যম বলছে ১১০ জনের বেশি ডেঙ্গুতে মৃত্যুবরণ করেছে, সরকার বলছে ২৩ জন। মানুষ নিজেরা গুনে দেখতে পাচ্ছে আসলে বেশি মানুষ মারা যাচ্ছে। ফলে তারা কর্তৃপক্ষকে আস্থায় আনছেন না। ডেঙ্গু বিষয়ে কোনো তথ্য লুকানো বা বিকৃত করা যাবে না।  সারাদেশে এডিস মশা বা লার্ভা নিধনের জন্য একটি জাতীয় কর্মপরিকল্পনা ঘোষণা করে সে অনুযায়ী কাজ শুরু করতে হবে। ডেঙ্গুতে কতো শতাংশ মানুষ মারা যাচ্ছে এই তথ্য দায়িত্বশীল ব্যক্তিরা জনগণের  সামনে প্রকাশ করলে ডেঙ্গু আতঙ্ক দূর হবে।

অন্য এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এডিস মশা ট্রান্সফার হওয়ার যতোগুলো পদ্ধতি রয়েছে তার মধ্যে একটি হচ্ছে যানবাহন। ধরা গেলো একটি ট্রেনে কোনো জায়গায় লুকায়িত এডিস মশা যদি থাকে এবং সেটি যদি ডেঙ্গুর জীবাণুবাহিক থাকে তাহলে ট্রেনটি যখন বিভিন্ন স্টেশনে থামবে তখন এই  মশা বাইরে  গিয়ে যদি কাউকে কামড় দেয় তার শরীরে ডেঙ্গুর জীবাণু ঢুকে যাবে। সে ডেঙ্গু আক্রান্ত হবে। এটি থামানোর জন্য বাস-ট্রেনে স্প্রে করার কথা হচ্ছে। স্প্রেটা ফগার মেশিন দিয়ে করা হলে এবং সেটি এডিস মশাকে মেরে ফেলার মতো ফগার মেশিন হলে খুব ভালো হতো।

 

 

 




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]