• প্রচ্ছদ » সাবলিড » ড. এম. শাহ্ নওয়াজ আলি বললেন, বঙ্গবন্ধুর নাম মুছে ফেলতে চেয়ে ব্যর্থ জিয়া-এরশাদ ইতিহাসের আঁস্তাকুড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছেন


ড. এম. শাহ্ নওয়াজ আলি বললেন, বঙ্গবন্ধুর নাম মুছে ফেলতে চেয়ে ব্যর্থ জিয়া-এরশাদ ইতিহাসের আঁস্তাকুড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছেন

আমাদের নতুন সময় : 09/08/2019

আশিক রহমান : বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সদস্য ও শিক্ষাবিদ প্রফেসর ড. এম. শাহ্ নওয়াজ আলি বলেছেন, প্রতি বছর আগস্ট আমাদের মাঝে ফিরে আসে শোকের আবহ নিয়ে। আগস্ট ফিরে আসে বঙ্গবন্ধুর কুখ্যাত ঘাতকদের বিরুদ্ধে তীব্র ঘৃণা আর শোককে শক্তিতে পরিণত করে নতুন বাংলাদেশ গড়ার দীপ্ত শপথ নিয়ে। বঙ্গবন্ধু ও বাংলাদেশ দুটি শব্দ একে অপরের পরিপর ক। বঙ্গবন্ধু ছাড়া বাংলাদেশের অস্থিত্ব কল্পনা করা যায় না

তিনি আরও বলেন, ভারতের স্বাধীনতা আন্দোলনের মহানায়ক চিত্তরঞ্জন দাস পেয়েছিলেন দেশবন্ধু খেতাব, স্বাধীনতা আন্দোলনের অন্যতম নায়ক বাংলার সূর্য  সন্তান সুভাসচন্দ্র বসু পেয়েছিলেন নেতাজি, ভারত রাষ্ট্রের জনক ‘অহিংস আন্দোলনের প্রবর্তক মোহনচাঁদ করমচাঁদ গান্ধী পেয়েছিলেন মহাত্মা, হোসেন শহীদ সোহরাওয়ার্দী গণতন্ত্রের মানসপুত্র, এসব মহামানব তথা নক্ষত্রতুল্য সুর্য সন্তানদের তালিকায় যুক্ত হয়ে শেখ মুজিব পেয়েছিলেন বঙ্গবন্ধু উপাধি। ১৯৬৯ সালের ২৩ ফেব্রুয়ারি স্বৈরশাসক আইয়ুব খানের বিরুদ্ধে গণঅভ্যুত্থানের পর শেখ মুজিবকে এ খেতাবে ভূষিত করা হয়।

তারা সবাই নিজেদের মহান কর্ম ও ত্যাগের মাধ্যমে জাতীয় জীবনে নিবেদিত চিত্র পালন করেছিলেন তার বিনিময়ে পেয়েছিলেন এসব খেতাব। প্রধানমন্ত্রী শেখ মুজিব, রাষ্ট্রপতি মুজিবের চাইতেও বঙ্গবন্ধু নামটি ১৯৬৯ সাল থেকে বাংলা তথা পৃথিবীর কোটি কোটি মানুষের হৃদয়ে চিরভাস্বর হয়ে আছে। মহাকালের যাত্রাপথে বঙ্গবন্ধু নামটি-যতোদিন বাংলাদেশ তথা পৃথিবী টিকে আছে স্মরণীয় বরণীয় হয়ে থাকবে। ১৯৭৫-৯৬ সাল পর্যন্ত দীর্ঘ ২১ বছর  স্বৈরশাসক জিয়া, এরশাদ বাংলাদেশ থেকে বঙ্গবন্ধু নামটি মুছে ফেলতে এমন প্রচেষ্টা নেই চালাননি। কিন্তু ব্যর্থ হয়ে তারাই ইতিহাসের আঁস্তাকুড়ে নিক্ষিপ্ত হয়েছেন। বঙ্গবন্ধু মহাকাশের উজ্জ্বল নক্ষত্রের মতো কোটি কোটি বাঙালির হৃদয় মন্দিরে স্থান করে আছেন।




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]