ভারতের সঙ্গে সমঝোতা এক্সপ্রেস বন্ধ করলো পাকিস্তান

আমাদের নতুন সময় : 09/08/2019

রাশিদ রিয়াজ : বৃহস্পতিবার পাকিস্তানের মিডিয়া জানিয়েছে, কাশ্মীর ইস্যুতে প্রতিবাদ স্বরূপ ফের একবার সমঝোতা এক্সপ্রেস বন্ধ করেছে পাকিস্তান। দুই মাস আগেও দুই দেশের তরফে বন্ধ ছিল সমঝোতা এক্সপ্রেস চলাচল। ভারতের মিডিয়া ও বিশেষজ্ঞ মত হচ্ছে কাশ্মীর ইস্যুকে আন্তর্জাতিক স্তরে নিয়ে যেতে এবং পাক সরকারের বিরোধিতাকে আরও মজবুত করতে এই পদক্ষেপ নিয়েছে ইমরান সরকার। চলতি বছর পুলওয়ামা হামলার পর থেকেই দুই দেশের মধ্যে ক্রমাগত বাড়তে থাকে তিক্ততা। যার জেরে দুই মাস আগেও দুই দেশের তরফে বন্ধ ছিল সমঝোতা এক্সপ্রেস চলাচল। আর এবার ফের বন্ধ হল সমঝোতার চাকা। আগের বারের মত এবারেও তার শুরুটা করল পাকিস্তান।
লাহোর থেকে আটারি পর্যন্ত এই দূরপাল্লার ট্রেন বৃহস্পতিবার সকাল ৮টা নাগাদ পাকিস্তান থেকে ছাড়ার কথা ছিল। তবে পাক রেলওয়ের অ্যাডিশনাল জেনারেল ম্যানেজার জানিয়েছেন, ‘নিরাপত্তা বিষয়ক তীব্র চাপানউতোরের মধ্যে যাতে কোনও অপ্রীতিকর ঘটনা না-ঘটে, সে জন্য ট্রেনের পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।’
পাক রেলওয়ে কর্তৃপক্ষকে উদ্ধৃত করে পাকিস্তানি চ্যানেল ডন নিউজ টিভি জানিয়েছেন, পরবর্তী নির্দেশ না-আসা পর্যন্ত সমঝোতা এক্সপ্রেসের পরিষেবা বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। উত্তেজনা থাকলেও এই ট্রেন ভারত থেকে নির্ধারিত সময়েই ছাড়ছে। নর্দার্ন রেলওয়ে জানিয়েছে, ‘বুধবার রাত ১১.২০-তে দিল্লি� থেকে আটারিগামী সমঝোতা এক্সপ্রেসে ছেড়েছে।’ সিমলা চুক্তি মেনে ১৯৭৬ সালের ২২ জুলাই দু দেশের মধ্যে চালু হয়েছিল এই ট্রেন।
এদিকে সম্পর্ক ছিন্ন করতে চেয়ে পাকিস্তানের পদক্ষেপ আশঙ্কাজনক বলে এক বিবৃতিতে জানিয়েছে ভারত। বৃহস্পতিবার ভারতের তরফ থেকে পাকিস্তানকে তাদের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করতে জানানো হয়েছে। বুধবার পাকিস্তান তাদের দেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাই কমিশনারকে বহিষ্কার করে। ভারতের বিদেশমন্ত্রী জয়শঙ্কর রায় এই সিদ্ধান্তের পরিপ্রেক্ষিতে জানিয়েছেন, ‘‘আমরা দেখেছি পাকিস্তান ভারতের সঙ্গে তাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্কের ক্ষেত্রে একতরফা পদক্ষেপ নেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।’’ ওই বিবৃতিতে আরও বলা হয়, পাকিস্তানের এই সিদ্ধান্ত ‘‘অবশ্যই আমাদের দ্বিপাক্ষিক সম্পর্র্কের একটি আশঙ্কামূক ছবি ফুটিয়ে তুলছে।’’
টাইমস অব ইন্ডিয়া/এনডিটিভি




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান

১৩২৭, তেজগাঁও শিল্প এলাকা (তৃতীয় তলা) ঢাকা ১২০৮, বাংলাদেশ। ( প্রগতির মোড় থেকে উত্তর দিকে)
ই- মেইল : [email protected]