ফেসবুকীয় অত্যাচার!

আমাদের নতুন সময় : 10/08/2019

আকতার বানু আল্পনা

কিছুদিন থেকে লক্ষ্য করছি ফেসবুকে নানা দেশের নানা রকম সুন্দর সুন্দর লোভনীয় খাবার রান্নার ভিডিও দেখানো হচ্ছে। শুধু ‘দেখানো হচ্ছে’ বললে ভুল বলা হয়। আসলে দেখিয়ে দেখিয়ে আমাদের ওইসব খাবারের লোভ দেখানো হচ্ছে। কিন্তু খেতে দেয়া হচ্ছে না। আমি মনে করি এটা ফেসবুকারদের সঙ্গে এক ধরনের নির্মম রসিকতা। বিশেষ করে আমার মতো ভোজনপ্রিয় মানুষদের কাছে এটা রীতিমতো মানসিক নির্যাতন। চোখের সামনে এমন সুস্বাদু খাবার দেখতে পাচ্ছি, কিন্তু কিনে বা রান্না করে খেতে পারছি না, এটা খাদ্যমূলক নিপীড়ন ছাড়া আর কি? এই খাদ্যমূলক নিপীড়ন থেকে উদ্ধার পাওয়ার উপায় কী? আমার মনে হয়, এ ধরনের ভিডিও পোস্টকারীদের বিরুদ্ধে সংঘবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তোলা উচিত, যাতে তারা এসব ভিডিও পোস্ট করা বন্ধ করেন অথবা এসব খাদ্য ‘হোম ডেলিভারি’র ব্যবস্থা করেন।
নির্বাচিত মন্তব্য : সাইয়েদুল ইসলাম মন্টু-আমি এমন খাদ্য নিপীড়নের হাত থেকে বাঁচতেই তো রান্না করা শিখে নিয়েছি, এখন যখনই কোনো খাবারের ছবি বা ভিডিও দেখি তখনি তা রান্না করার চেষ্টা করি আর খাদ্য নিপীড়নের হাত থেকে বেঁচে যাই। ২. আকতার বানু আল্পনা-কিন্তু ওসব মশলা কই পাবেন? আর খাসির আস্ত রান কিসে রান্না করবেন? অথবা মিষ্টি কুমড়া বা বিশাল পাউরুটির ভেতরে মাংস বা বিরিয়ানী কীভাবে রান্না করবেন? ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]