একটি সাবধান বাণী

আমাদের নতুন সময় : 11/08/2019

কামাল পাশা চৌধুরী : এগুলোকে বলে পটকা মাছ। হাওর অঞ্চলে খুব পরিচিত। এখনই এটা ধরা পড়ার প্রধান সময়। এই মাছ খেয়ে অনেক মানুষের মৃত্যু ঘটেছে, তার মাঝে আমার পরিচিতজনও আছে। অথচ এটা হাওর এলাকায় সুস্বাদু মাছ হিসেবেই একসময় খাওয়া হতো। যারা থাইল্যান্ড, ভিয়েতনাম, কোরিয়া ও জাপান গেছেন সেসব দেশে হোটেলের খাবার মেনুতেও এর উল্লেখ দেখে থাকবেন। আসলে এটা খাওয়া যায় ঠিকই, কিন্তু এর ভেতরে একটা ‘টক্সিন গø্যান্ড’ বা বিষের থলি আছে। কাটার সময় এটা খুব সাবধানে ফেলে দিতে হয়। আমদের হাওর অঞ্চলের মা-চাচীরা এটা খুব ভালোভাবে পারতো বলে এটা রান্নার তখন ব্যাপক প্রচলন ছিলো। সম্প্রতি এটা কাটার পদ্ধতি অনেকেই জানে না। তাই এটা খাওয়া যায় শুনে ওই গø্যান্ডাটা না ফেলে পটকা মাছ খেয়ে অনেকেই প্রচÐ বিষক্রিয়ায় আক্রান্ত হয়ে মৃত্যুবরণ করেছেন। বি.দ্র. গোস্বামী সিগ্ধার পোস্টে ছবিটি দেখে এটা সবাইকে জানানো কর্তব্য মনে করলাম। ফেসবুক থেকে




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]