• প্রচ্ছদ » শেষ পাতা » কুটনৈতিক তৎপরতা বাড়ানো হলেও দেশে ফিরিয়ে আনা যাচ্ছেনা বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের


কুটনৈতিক তৎপরতা বাড়ানো হলেও দেশে ফিরিয়ে আনা যাচ্ছেনা বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের

আমাদের নতুন সময় : 15/08/2019

ইসমাঈল ইমু : রেড এ্যালার্ট জারী, কুটনৈতিক তৎপরতা, নানাবিধ লবিং করেও বিদেশের মাটি থেকে আনা যাচ্ছে না বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের। সরকারের জোর চেষ্টার পরেও সংশ্লিষ্ট দেশগুলোর এ ব্যাপারে ইতিবাচক কেনো পদক্ষেপ না নেয়ায় তাদেরকে দেশে ফিরিয়ে আনা সম্ভব হয়নি।
পলাতক ছয়জন হলেন-আব্দুর রশিদ, শরিফুল হক ডালিম, এম রাশেদ চৌধুরী, এসএইচএমবি নূর চৌধুরী, আব্দুল মাজেদ ও রিসালদার মোসলেম উদ্দিন।
১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হত্যার পরপরই দায়মুক্তি (ইনডেমনিটি) অধ্যাদেশ জারি করা হয়। জিয়াউর রহমানের সরকার বঙ্গবন্ধু হত্যাকারীদের নানা দেশে বড় বড় পদে চাকরী দিয়ে পুরস্কৃত করে। আসামীদের মধ্যে কেউ কেউ দেশের মাটিতে অবস্থান নিয়ে রাজনৈতিক দলও গড়ে তোলে। হত্যার ২১ বছর পর ১৯৯৬ সালের ১২ নভেম্বর দায়মুক্তি আইন বাতিল করে আওয়ামী লীগ সরকার। ওই বছরের ২ অক্টোবর ধানমন্ডি থানায় বঙ্গবন্ধুর ব্যক্তিগত সহকারী মহিতুল ইসলাম বাদী হয়ে মামলা করেন। ১৯৯৮ সালের ৮ নভেম্বর বিচারিক আদালত ওই মামলায় ২৪ জন আসামীর মধ্যে ১৫ জনকে মৃত্যুদ- দেন। রায়ের বিরুদ্ধে আপিল হলে হাইকোর্ট ১২ জনের মৃত্যুদ- বহাল রাখেন। ২০১০ সালের ২৮ জানুয়ারি কার্যকর হয় বঙ্গবন্ধুর পাঁচ খুনি ফারুক রহমান ও সুলতান শাহরিয়ার রশিদ খান, বজলুল হুদা, মহিউদ্দিন আহমেদ ও একেএম মহিউদ্দিনের ফাঁসি। পলাতক অবস্থায় জিম্বাবুয়েতে মারা যান আজিজ পাশা।
বাকী আসামীরা কে কোথায় : এদের মধ্যে চারজনের সম্ভাব্য অবস্থান হলো- কানাডায় নূর চৌধুরী। যুক্তরাষ্ট্রে রাজনৈতিক আশ্রয়ে রাশেদ চৌধুরী। মোসলেম উদ্দিন জার্মানিতে ও শরিফুল হক ডালিম স্পেনে। এই ছয় খুনির মধ্যে দুজন কোন দেশে অবস্থান করছেন তার সঠিক তথ্য কেউ জানে না। এরা হলেন খন্দকার আবদুর রশিদ ও আবদুল মাজেদ। চারজনের বিরুদ্ধে ২০০৯ সালে রেড এ্যালার্ট জারী করা হয়। কুটনৈনিতক তৎপরতা চালানো হয়। সংশ্লিষ্ট দেশগুলোর প্রভাবশালী রাজনীতিক, ব্যাবসায়ীদের দিয়েও নানাভাবে তদবির করা হয়। বিশেষ করে যুক্তরাষ্ট্র ও কানাডা গত ১০ বছর ধরে আসামীদের ফেরত দেব দিচ্ছি করে আশ^স্ত করলেও সম্প্রতি সরাসরি জানিয়ে দিয়েছে আসামীদের ফেরত দেওয়া সম্ভব নয়, আইন কভার করে না।সম্পাদনা : সমর চক্রবর্তী




সর্বশেষ সংবাদ

সম্পাদক ও প্রকাশক ঃ নাঈমুল ইসলাম খান
বার্তা ও বাণিজ্য বিভাগ ঃ ১৯/৩ বীর উত্তম কাজী নুরুজ্জামান সড়ক , পশ্চিম পান্থপথ, ঢাকা থেকে প্রকাশিত
ছাপাখানা ঃ কাগজ প্রেস ২২/এ কুনিপাড়া তেজগাঁও শিল্প এলাকা ,ঢাকা -১২০৮
ই- মেইল : [email protected]